পরিমিত মদ্যপান শরীরের পক্ষে কি আদৌ ভালো? জেনেনিন কী বলছে গবেষণা!

মদ্যপান শরীরের পক্ষে খুবই খারাপ। তবে তারপরও মদ্যপান নিয়ে নানা মুণির নানা মত। এক্ষেত্রে কিছু মানুষ মনে করেন সামান্য পরিমাণে মদ্যপান করলে তেমন কোনও সমস্যা নেই! সত্যিই কি তাই? আসুন জান যাক।

ক্লিনিক্যাল নিউট্রিশন-এ প্রকাশ পাওয়া এই গবেষণা বলছে, ব্রিটেনের বেধে দেওয়া মদ্যপানের লিমিট হল সপ্তাহে ১৪ ইউনিট। দেখা যাচ্ছে, এর থেকে কম পরিমাণে মদ্যপান করলেও কার্ডিওভাস্কুলার রোগের আশঙ্কা দেখা দিচ্ছে। এক্ষেত্রে ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে হার্ট সহ শরীরের অন্যান্য অঙ্গ।

এই গবেষণার জন্য গবেষকরা ব্রিটেনের ৪০ থেকে ৬৯ বছর বয়সি মানুষ যারা কার্ডিওভাস্কুলার সমস্যা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন এমন সাড়ে ৩ লাখ মানুষের তথ্য জোগাড় করেন।

এরমধ্যে ৩ লক্ষ ৩৩ হাজার ২৫৯ জন মানুষ মদ্যপান করতেন। এই মানুষগুলোকে সাপ্তাহিক মদ্যপানের হিসবে চাওয়া হয়। প্রায় ৭ বছর ধরে গ্রহণ করা হয় তথ্য। এক্ষেত্রে আগেও যাদের কার্ডিওভাস্কুলার সমস্যা হয়েছে তাদের এই গবেষণার আওতায় আনা হয়নি।

এই গবেষণায় দেখা যায়, কার্ডিওভাস্কুলার রোগে আক্রান্ত বেশিরভাগ মানুষেরই মদ্যপান করার অভ্যাস রয়েছে। এমনকী খুব কম পরিমাণে মদ্যপান করলেও এই সমস্যা হতে দেখা যাচ্ছে।

এই গবেষণা বলছে, কম মদ্যপান নাকি শরীরের পক্ষে ভালো, অন্তত এমনটাই দাবি করেছে বিভিন্ন মানুষ। তবে তারপরও এই গবেষণা চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিচ্ছে, কম মদ্যপানেও সমস্যা হতে পারে।

গবেষকদলের কথায়, মদ হোক বা বিয়ার, সপ্তাহে ১৪ ইউনিটের কম পান করলেও দেখা দিতে পারে অনেক বড় সমস্যা। সেক্ষেত্রে কার্ডিওভাস্কুলার রোগের আশঙ্কাই থাকে বেশি।

অনেক সময় আমরা এও শুনে থাকি, কম পরিমাণে ওয়াইন খেলে নাকি সমস্যা হয় না। এমনকী শরীর নাকি ভালো হয়। যদিও বিষয়টা একেবারেই তাই নয়। এক্ষেত্রে ওয়াইন খাওয়ার মাধ্যমে শরীরে দেখা দিতে পারে মারাত্মক সমস্যা। তাই সতর্ক থাকুন।

তাই বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ, মদ্যপান করা কোনভাবেই উচিত নয়। সে কম হোক বা বেশি। এক্ষেত্রে শরীরে দেখা দিতে পারে মস্ত সমস্যা। তাই যারা মদ্যপান করেন, তারা সতর্ক হোন।rs

Related Posts

© 2022 Totka24x7 - Theme by WPEnjoy · Powered by WordPress