পর্যাপ্ত ঘুম ও ঘুমের সঠিক সময় সুস্থতার চাবিকাঠি, জানাচ্ছে নতুন গবেষণা

শরীর সুস্থ ও কর্মক্ষম রাখতে ঘুমের বিকল্প নেই। ঘুম মানুষকে শারীরিক ও মানসিকভাবে সুস্থ রাখে। সেই সাথে পর্যাপ্ত ঘুম হার্টকে ভালো রাখে, হার্টের যেকোন রোগ থেকে শরীরকে সুরক্ষা দান করে । গবেষকরা বলছেন , ঘুমাতে যাওয়ার সময়ের ওপর হার্টের সুস্থতা নির্ভর করে।

গবেষণা:

সম্প্রতি যুক্তরাজ্যের গবেষণা অনুসারে,রাত ১০টা থেকে ১১টার মধ্যে ঘুমানো শরীরের জন্য সবচেয়ে ভালো। ইউরোপিয়ান হার্ট জার্নালে নতুন এই গবেষণা প্রকাশিত হয়েছে। ৪৩ থেকে ৭৯ বছর বয়সী ৮৮ হাজারের বেশি মানুষের ওপর সাতদিনের একটি জরিপ চালানো হয়। অ্যাক্সিলোমিটার ব্যবহার করে তারা তাদের ঘুমাতে যাওয়ার সময় ও ঘুম থেকে ওঠার সময় মনিটর করেন। স্বেচ্ছাসেবকদের বিভিন্ন শারীরিক পরীক্ষা ও স্বাস্থ্য মূল্যায়নও করা হয়।

গবেষণা বলছে যে, যারা রাত ১০টা থেকে ১১ টার মধ্যে ঘুমায় তাদের তুলনায় যারা রাত ১০টার আগে এবং ১১টার পরে ঘুমাতে যায় তাদের হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি। বিছানায় যাওয়ার সাথে হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার এ সম্ভাবনাটি নারীদের ক্ষেত্রে বেশি দেখা যায়।

পর্যাপ্ত ঘুম ও ঘুমের সঠিক সময় সুস্থতার চাবিকাঠি:

কম ঘুমের কারণে হাইপারটেনশন, ওবেসিটি এবং ডায়াবেটিস হয়। এর আগেও গবেষকরা একজন সুস্থ মানুষকে প্রতিদিন সাত থেকে আট ঘণ্টা ঘুমের কথা বলেছেন। সম্প্রতি কখন ঘুমাতে যাওয়া হচ্ছে সেই সময়ের সাথে হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনাকে সংযুক্ত করা হয়েছে।

গবেষণার লেখক এবং এক্সেটার বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংগঠনিক নিউরোসায়েন্সের সিনিয়র প্রভাষক ড. ডেভিড প্ল্যানস জানিয়েছেন, ‘আমাদের গবেষণা ইঙ্গিত দেয় যে, ঘুমাতে যাওয়ার সর্বোত্তম সময় হলো শরীরের ২৪ ঘণ্টা চক্রের কএকটি নির্দিষ্ট বিন্দুতে এবং এর বিচ্যুতি ক্ষতিকর কারণ হয়ে দাঁড়ায়। সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ সময় হলো মধ্যরাতের পরে, কারণ এতে করে ভোরের আলো দেখার সম্ভাবনা কমে যায় যা আমাদের শরীরের ঘড়িয়ে পুনরায় সেট করে।’

তিনি আরো ব্যাখ্যা করেছেন যে, কীভাবে ঘুমাতে যাওয়ার সঠিক সময় সার্কাডিয়ান রিদম এবং দিনের আলোর সাথে অভ্যস্থ করে তোলে। তিনি বলেন, ‘তাড়াতাড়ি বা দেরিতে ঘুমাতে গেলে তা শরীরের ঘড়িকে ব্যাহত করে যার ফলে হার্টের রোগের সম্ভাবনা বাড়ে।’

তবে রাত ১০টা থেকে রাত ১১টা মধ্যে ঘুমানো সবার জন্য প্রযোজ্য না। এর জন্য আরো গবেষণা প্রয়োজন।

বেঙ্গালুরুর এস্টার সিএমআই হাসপাতালের ইন্টারভেনশনাল কার্ডিওলজির সিনিয়র কনসালটেন্ট ডাঃ সঞ্জয় ভাটের মতে, ঘুমানোর কোন সঠিক সময় বলে কিছু নেই। সুস্থ হার্ট ও শরীরের সুস্থ কার্যক্রমের জন্য আট ঘণ্টা নিরবচ্ছিন্ন ঘুম জরুরি। তিনি আরো বলেন, ‘তাই বলে ভালো ঘুমের জন্য অ্যালকোহল বা ঘুমের ওষুধ খাওয়া ঠিক না। কেউ যদি ঘুম কম হওয়ার সমস্যা, রাতে বার বার ঘুম থেকে উঠে যাওয়া, ঘুমের মধ্যে শ্বাস নিতে না পারার সমস্যায় ভোগেন তাহলে অবশ্যই দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।

Related Posts

© 2022 Totka24x7 - Theme by WPEnjoy · Powered by WordPress