দীর্ঘ ঘন প্রস্রাব চেপে রাখলে যেসব ভয়াবহ ক্ষতি

কাজের ব্যস্ততায় ও রাস্তায় বের হলে অনেক সময় শৌচাগারের অভাবে প্রস্রাবের বেগ চেপে রাখতে হয়। যা স্বাস্থ্যের জন্য ভয়াবহ ক্ষতি। প্রস্রাবের বেগ চেপে রাখার দীর্ঘমেয়াদে এই অভ্যাস শরীরের জন্য ক্ষতির কারণ বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। আর আলসেমির কারণে প্রস্রাব চেপে রাখেন অনেকে।

চিকিৎসা-বিজ্ঞানের সাধারণ তথ্যানুসারে মানুষের মূত্রথলি ৪শ’ থেকে ৫শ’ মি.লি. লিটার মূত্র ধারণ করতে পারে। যা প্রায় দুই কাপ পরিমাণ। এই মূত্রথলির আছে প্রসারিত হওয়ার ক্ষমতা। যার বেগ চেপে রাখা বড় কোনো সমস্যা তৎক্ষণাৎ ডেকে আনে না। তবে বেগ চেপে রাখা নিত্যদিনের অভ্যাসে পরিণত হলে মূত্রথলির পেশি দুর্বল হতে থাকে। স্বাস্থ্যবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদনের এ বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ অনেক তথ্য জানানো হয়েছে।

আসুন জেনে নেই প্রস্রাব চেপে রাখলে হতে পারে যে সব ক্ষতি-

১. মূত্রথলির পেশি দুর্বল হওয়াকে হালকাভাবে নেয়া যাবে না। এই দুর্বল পেশির কারণে মূত্রত্যাগের স্বাভাবিক প্রবাহে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হতে পারে। এমনকি নিজের অজান্তেই মূত্রত্যাগ হয়ে যেতে পারে।

২. নিয়মিত প্রস্রাবের বেগ চেপে রাখার ভয়ানক পরিণতির মধ্যে অন্যতম হল মূত্রনালীর সংক্রমণ বা ‘ইউরিনারি ট্র্যাক্ট ইনফেকশন (ইউটিআই)’।

৩. প্রস্রাব চেপে রাখলে মূত্রনালীতে ব্যাক্টেরিয়ার সংখ্যা বেড়ে যায়। যাদের বংশে এই রোগ আছে তাদের আশঙ্কা বেশি। এ ছাড়া অভ্যাস পরিবর্তন না করলে রোগ ফিরে আসতে পারে।

৪. পর্যাপ্ত পানি পান করতে হবে। তা না হলে মূত্রনালীর সংক্রমণ দেখা দিতে পারে।

৫. ‘ইউরিনারি ট্র্যাক্ট ইনফেকশন (ইউটিআই)’-এর লক্ষণগুলোর মধ্যে রয়েছে প্রস্রাবে জ্বালাপোড়া, প্রস্রাবের রং পরিবর্তন, রক্ত আসা, তলপেটে ব্যথা, প্রস্রাবে বাজে গন্ধ হওয়া।

৬. নিয়মিত প্রস্রাবের বেগ চেপে রাখার কারণে মূত্রথলির প্রসারণ ক্ষমতাও নষ্ট হতে পারে। ফলে মূত্রথলি প্রসারিত হয়ে আর স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে যায় না।

৭. একজন সুস্থ মানুষ দিনে চার থেকে ১০বার মূত্রত্যাগ করতে পারেন। তবে গড় হিসাব বলে দিনে ছয় থেকে আটবার।

Related Posts

© 2022 Totka24x7 - Theme by WPEnjoy · Powered by WordPress