বাদামের স্বাস্থ্য উপকারিতা সম্পর্কে জেনেনিন বিস্তারিত ভাবে

বাদাম খুবই স্বাস্থ্যকর এবং পুষ্টিকর একটি খাবার। ফ্যাট, ফাইবার, ভিটামিন, খনিজ, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং প্রোটিনে ভরপুর বাদাম নিয়মিত খেলে তা নানা উপায়ে আমাদের স্বাস্থ্য ভালো রাখে। এটি কোলেস্টেরলের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করতে সহায়তা করে, হৃদরোগ উপশম করে এবং যারা ওজন কমাতে চান তাদের জন্য আদর্শ একটি খাবার হলো বাদাম। এছাড়াও এটি আমাদের শক্তি বৃদ্ধিতে এবং তারুণ্য ধরে রাখতে দুর্দান্ত ভূমিকা রাখে।

বাদামের স্বাস্থ্য উপকারিতা

স্বাস্থ্যের জন্য উপকারীর পাশাপাশি বাদাম সুস্বাদু এবং নানারকম খাবারে ব্যবহার করা যায়। যেমন- স্মুদি, কেক বা মিষ্টিতে ব্যবহার করা যায়, আবার শুধু বাদামও খাওয়া যায়। তবে বেশিরভাগ লোকেরা বুঝতে পারেন না যে অত্যধিক বাদাম খেলে তা আমাদের স্বাস্থ্যের উপর কিছু নেতিবাচক প্রভাব ফেলে। জেনে নিন প্রয়োজনের তুলনায় বেশি বাদাম খেলে কী কী সমস্যা হতে পারে-

* ওজন বৃদ্ধি

যারা ওজন কমানো চেষ্টা করছেন তাদের জন্য বাদাম একটি উপকারী খাবার। এটি আপনাকে অস্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়া থেকে বিরত রাখতে পারে। তবে অতিরিক্ত বাদাম খাওয়ার ফলে ওজন বাড়তেও পারে। এর কারণ বাদামের ক্যালরি এবং প্রয়োজনের তুলনায় বেশি খেয়ে ফেলা। এটি আপনার ওজন কমানোর বদলে বাড়িয়ে তুলতে পারে।

* পেটে ফোলাভাব এবং হজম সমস্যা

খুব বেশি বাদাম খাওয়ার পরে পেট ফুলে যাওয়া এবং গ্যাস জমে যাওয়া সাধারণ বিষয়। বাদামে উপস্থিত যৌগ এর জন্য দায়ী হতে পারে। বাদামের ফাইটেটস এবং ট্যানিন জাতীয় যৌগ থাকে, যা আমাদের পাকস্থলীর হজম করতে সমস্যা করে।

* বিষাক্ততা

অতিরিক্ত বাদাম খেলে তা শরীরে টক্সিনের পরিমাণ বাড়িয়ে তুলতে পারে। বাদাম খাওয়ার সময় অতিরিক্ত সতর্কতা অবলম্বন করা উচিত কারণ বেশি খেলে তার অসংখ্য পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া রয়েছে। বাদামে হাইড্রোকায়ানিক অ্যাসিড থাকে যা শ্বাসকষ্ট, নার্ভাস ব্রেকডাউন এবং দম বন্ধ লাগার অনুভূতি দিতে পারে।

* প্রতিদিন কতটুকু বাদাম খাওয়া উচিত

বাদাম অনেক বেশি খেলেও খারাপ লাগে না। তাই বাদাম একবারে বেশি খাওয়া সহজ। কিন্তু দৈনিক ৪২ গ্রাম বা এক মুঠোর বেশি বাদাম খাওয়া উচিত না।

Related Posts

© 2022 Totka24x7 - Theme by WPEnjoy · Powered by WordPress