চুলে দই ব্যবহার করবেন যে কারণে জেনেনিন

দই ত্বক কিংবা চুলের যত্নে উপকারী একথা প্রায় সবাই জানেন। কিন্তু কোন উপায়ে চুলে তই ব্যবহার করলে উপকার মিলবে, তা অধিকাংশ মানুষই জানেন না। চুলের বিভিন্ন সমস্যা দূর করতে দইয়ের ব্যবহার অনেক পুরোনো। দই চুলের খুশকি বা ইনফেকশন দূর করে। দইয়ে রয়েছে ভিটামিন বি ৫ ও ডি। জেনে নিন চুলে দই ব্যবহারের উপকারিতা ও নিয়ম।

খুশকি দূর করে
খুশকি এক যন্ত্রণার নাম। খুশকি থেকে দূরে থাকতে নানা প্রচেষ্টা আমাদের। একবার হলে যেন আর যেতেই চায় না। খুশকি তাড়াতে আপনাকে সাহায্য করতে পারে দই। জেনে নিন সেজন্য দইয়ের মাস্ক কিভাবে তৈরি করবেন-

উপকরণ:
১ কাপ দই,
৫ চামচ মেথি গুঁড়া ও
১ চামচ লেবুর রস।

এই তিনটি উপকরণ একসঙ্গে মিশিয়ে চুলে মাস্ক হিসেবে লাগিয়ে নিন। ৪০ মিনিট রাখুন। এরপর হার্বাল শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে নিন। সপ্তাহে দুইদিন এভাবে ব্যবহার করলে মাসখানেক পরেই মিলবে কাঙ্ক্ষিত ফল।

চুল ঝলমলে করে
দূষণ ও ঘাম বেড়ে যাওয়ার জন্য আজকাল ঝলমলে কম দেখা যায়। তাই চুলের ঝলমলেভাব ফিরিয়ে আনার জন্য ব্যবহার করুন এই মাস্ক-

উপকরণ:
১ কাপ দই,
২০টি জবা ফুল,
১০টি নিম পাতা ও
অর্ধেক কমলার রস।

এবার সব উপকরণ একসাথে পিষে পেস্ট তৈরি করে নিন। এবার এই পেস্ট চুলে ও মাথার তালুতে ভালোভাবে মাখুন। আধা ঘণ্টা পর শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে নিন। সপ্তাহে একদিন ব্যবহার করতে পারেন।

চুল মজবুত করে
দই মাথার তালু ঠান্ডা রেখে চুলের স্বাস্থ্য় ভালো রাখে। তাই চুল পড়ার সমস্যা এড়াতে এই মাস্ক ব্যাবহার করুন।

উপকরণ:
১ কাপ দই,
১টি ডিম,
২ চামচ জলপাইয়ের তেল,
৩ চামচ ঘৃতকুমারী জেল,
৪ চামচ তুলসি পাতার পেস্ট ও
২ চামচ কারি পাতার পেস্ট।

সব উপকরণ এক জায়গায় মিশিয়ে পেস্টটি চুলে ভালো করে গোড়া থেকে আগা পর্যন্ত লাগান। এভাবে এক ঘণ্টা রেখে দিন। এরপর শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে নিন। নিয়মিত ব্যবহারে চুল গোড়া থেকে শক্ত হবে।

Related Posts

© 2022 Totka24x7 - Theme by WPEnjoy · Powered by WordPress