জীবনযাপন

আপনার রোগ-ব্যাধি দূর করতে এখন যোগাসন, জেনেনিন বিস্তারিত

যোগাসন আমাদের দেশে খুব একটা প্রচলিত না থাকলেও এর ইতিহাস শত শত বছরের। যোগাসনের বহুমাত্রিক গুনাবলি জীবনকে সুন্দর ও সুস্বাস্থ্যের অধিকারী করে। মানসিক জড়তা ও অবসন্ন ভাব কাটাতে সাহায্য করে। যোগাসন সব সময় স্ট্রেস বা মানসিক চাপ কমাতেও সাহায্য করে।

অনেকেই নতুন বছরে শুরু করতে চান নিয়মিত যোগাভ্যাস করার সু অভ্যাস। যারা নতুন বছরে এই ধরনের সংকল্প নিয়েই নিয়েছেন তাদের জন্য রইল কয়েকটি আসনের খোঁজ-

যোগাভ্যাস এক দিনে আয়ত্ত করার বিষয় নয়। কাজেই যারা আগে যোগাসন করেননি তারা আগে শুরু করতে পারেন কিছু প্রাণায়াম। পরিচিত প্রাণায়ামগুলোর মধ্যে কপালভাতি অন্যতম। বিশেষত কোভিড পরিস্থিতিতে ফুসফুসকে চাঙ্গা রাখতে এটি খুবই কার্যকর একটি উপায়। শ্বাসতন্ত্রের স্বাস্থ্যরক্ষা, দেহে অক্সিজেনের পরিমাণ স্বাভাবিক রাখা, পেটের মেদ কমানোর মতো একাধিক উপকার মিলতে পারে কপালভাতির নিয়মিত অনুশীলনে।

নিয়মিত পেটের সমস্যায় ভোগেন যারা, তারা অবশ্যই এই বছরে শুরু করতে পারেন বজ্রাসন। আসনটি আয়ত্ত করা খুবই সহজ। হাঁটু মুড়ে পায়ের উপর বসে মেরুদণ্ড সোজা রেখে হাত রাখতে হবে হাঁটুতে।

হজমের জন্য উপকারী আরেকটি আসন হল পবনমুক্তাসন। পবনমুক্তাসনে পিঠের উপর শুয়ে, হাঁটুকে বুকের কাছে টেনে আনতে হবে ভাঁজ করে।

যারা একটু কঠিন আসনে পিছপা হন না তারা চেষ্টা করে দেখতে পারেন শীর্ষাসন। মাথা নীচে রেখে পা, হাত ও কুনুইয়ের সাহায্যে ভারসাম্য রেখে পা উলম্ব ভাবে উপরের দিকে রেখে এই আসন করতে হয়। সঠিক ভাবে করতে পারলে এই আসনে দেহের উপরের দিকের অঙ্গগুলোতে রক্তসঞ্চালন ভাল হয়। ফলে স্নায়ু, বিভিন্ন গ্রন্থি, চোখ, কান নাকের মতো ইন্দ্রিয় ভাল থাকে। তবে এটি আয়ত্ত করা কিন্তু সহজ নয়। আর আগে থেকে বিভিন্ন ইন্দ্রিয়ের সমস্যা, উচ্চ রক্তচাপ, হার্টের সমস্যা ইত্যাদি থাকলে এই আসন করা চলবে না।

Related Articles

Back to top button