স্বাস্থকর হলেও নিয়মিত অ্যালোভেরা ব্যবহার হতে পারে বিপজ্জনক! বলছে গবেষণা

প্রাকৃতিক ভেষক এক উপাদান হলো অ্যালোভেরা। এর স্বাস্থ্য উপকারিতা অনেক। তবে অ্যালোভেরার অতিরিক্ত ব্যবহার ডেকে আনতে পারে একাধিক সমস্যাও। বিশেষজ্ঞদের মতে, অ্যালোভেরায় থাকে অ্যালোইন নামক এক ধরনের উপাদান। শরীরে এই উপাদান ব্যবহারের সর্বোচ্চ মাত্রা হলো ১০ পিপিএম।

চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া বাহ্যিক ব্যবহারের ক্ষেত্রে এই মাত্রা ৫০ পিপিএম। এর বেশি অ্যালোভেরা গ্রহণ করলে দেখা দিতে পারে একাধিক স্বাস্থ্য সমস্যা। যেমন-

>> অনেকেই নিয়মিত অ্যালোভেরার রস পান করেন। সেক্ষেত্রে চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া জরুরি। কারণ অ্যালোভেরার রস হঠাৎই রক্তের শর্করার মাত্রা কমিয়ে দিতে পারে। বিশেষ করে ডায়াবিটিস রোগীদের ক্ষেত্রে এই সমস্যা বিপদ ডেকে আনতে পারে।

>> অতিরিক্ত অ্যালোভেরা গ্রহণের ফলে দেহের ইলেক্ট্রোলাইটের ভারসাম্য নষ্ট হতে পারে। এমনকি তৈরি করতে পারে জলশূন্যতাও। এমনকি এক্ষেত্রে বদলে যেতে পারে মূত্রের রংও।

>> কোষ্ঠকাঠিন্য কিংবা অর্শ রোগে যারা ভোগেন, তাদের জন্য অ্যালোভেরা খুবই কার্যকর হতে পারে। কারণ এই ভেষজ মল নরম রাখতে সাহায্য করে। তবে অতিরিক্ত অ্যালোভেরার রস খেলে আবার হতে পারে ডায়রিয়া। এমনকি ইরিটেবল বাওয়েল সিনড্রোমও তৈরি হতে পারে।

>> অতিরিক্ত অ্যালোভেরা খেলে শরীরে পটাশিয়ামের স্বাভাবিক মাত্রা নষ্ট হতে পারে। ফলে হঠাৎ মাথা যন্ত্রণার সমস্যা তৈরি হয়।

পটাশিয়ামের মাত্রায় ভারসাম্য না থাকলে অনিয়মিত হৃদস্পন্দন, পেশির অস্বাভাবিক শিথিলতা ও আকস্মিক ক্লান্তির মতো সমস্যা দেখা দিতে পারে। তাই অ্যালোভেরা খাওয়ার আগে এসব বিষয় মাথায় রাখুন।

Related Posts

© 2022 Totka24x7 - Theme by WPEnjoy · Powered by WordPress