অতিরিক্ত ঘুমানোর ফলে মারাত্বক স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে পড়ছেন না তো আপনি? দেখেনিন একনজরে

ঘুম | আমাদের দেহ-মন সুস্থ রাখতে ঘুমের বিকল্প নেই। ঘুমের অভাব দূর করা তাই অতি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। ঘুম শরীরকে সুস্থ রাখতে খুবই প্রয়োজনীয় একটি বিষয়। বিশেষজ্ঞদের মতে, সাধারণত একজন প্রাপ্ত বয়স্ক মানুষের প্রতিদিন সাত থেকে আট ঘণ্টা ঘুমানো প্রয়োজন।

মূল বিষয়:

খুব দ্রুত দেহের ওজন বাড়ে
হৃদরোগ-সহ মাথাব্যাথা ও মাইগ্রেন
বিশেষ করে নারীদের গর্ভধারণে সমস্যা ও কোমড়ে ব্যথা
পুরুষদের ক্লান্তিকর ঘুমের ফলে অবসন্নতা কর্মক্ষমতা কমে যায়
গড় আয়ু কমা-সহ ডায়াবেটিস রোগের ঝুঁকি বাড়ায়
ঘুম পর্যাপ্ত না হলে যেমন শরীর ও মনের স্বাস্থ্যের ক্ষতি হয়, তেমনি বেশি ঘুমও কিন্তু শরীরের ক্ষতি করে। কিন্তু বেশি ঘুমালে কী হয়?

এক সমীক্ষায় দেখা গেছে, যারা রাতে দেরি করে ঘুমাতে যান এবং সকালে দেরি করে ঘুম থেকে ওঠেন তাদের অকালে মৃত্যুর ঝুঁকি বেশি থাকে।

যুক্তরাজ্যের ৪ লাখ ৩৩ হাজার মানুষের ওপর জরিপ চালিয়ে দেখা যায় সকালে তাড়াতাড়ি ওঠা ব্যক্তিদের চেয়ে রাতজাগা মানুষের অকাল মৃত্যুর আশঙ্কা ১০ শতাংশ বেশি। গবেষণায় দেখা যায় দেরি করে ঘুম থেকে ওঠার কারণে বিভিন্ন মানসিক ও শারীরিক জটিলতার শিকার হতে হয়।

বিজ্ঞানীরা এ সংক্রান্ত গবেষণার জন্য চার ধরনের মানুষকে বেছে নিয়েছেন। যারা প্রতিদিন নিয়মিত সকালে ওঠেন, যারা মাঝে মাঝে সকালে ওঠেন, যারা মাঝে মাঝে দেরি করে ঘুমান এবং যারা প্রতিরাতে নিয়মিত রাত জাগেন। এই চারটি ক্যাটাগরিতে থাকা অংশগ্রহণকারীদের বয়স ৩৮ থেকে ৭৩ বছরের মধ্যে।
পরে এই গবেষণাপত্রটি আন্তর্জাতিক ক্রোনবায়োলজি জার্নালে প্রকাশ করা হয়। সেখানে দেখা যায় যে ব্যক্তি নিয়মিত সকালে ঘুম থেকে ওঠেন তার গড় আয়ু রাতজাগা ব্যক্তিদের থেকে সাড়ে ছয় বছর বেশি।

সেই জন্য অবশ্যই রাত জাগার অভ্যাস বদলাতে রাতের বেলা মোবাইল ও ল্যাপটপের ব্যবহার কমাতে হবে।

দেহের ওজন বাড়ে

বেশি ঘুমানোর শরীরে শক্তিশালী প্রভাব ফেলে। বেশি ঘুমালে শরীরে চর্বি জমা হয়। আর এতে ওজন বাড়ে। যুক্তরাষ্ট্রের অ্যারিজোনা স্টেট বিশ্ববিদ্যালয়ের আরেক গবেষণায় বলা হয়, খুব কম বা বেশি ঘুমের কারণে দেহের ওজন অস্বাভাবিক হারে বাড়তে থাকে। এসব মানুষের ওজন বৃদ্ধির হার ২৫ শতাংশ বেশি থাকে। অতিরিক্ত ঘুমের কারণে স্থূলতা দেখা দিতে পারে।

মাথাব্যথা ও মাইগ্রেন

অতিরিক্ত ঘুম মাথাব্যথা ও মাইগ্রেনের সমস্যা বাড়ায়। একে উইকেন্ড হেডঅ্যাক বলে।

হৃদরোগ

বেশি ঘুমালে হৃদরোগের আশঙ্কা বাড়ে। গবেষণায় বলা হয়, নয় থেকে ১১ ঘণ্টার ঘুম আটাশ শতাংশ হৃদরোগের ঝুঁকি বাড়ায়। আমেরিকান কলেজ অব কার্ডিওলজি ২০১২ সালে এক গবেষণা চালায়। সেখানে বলা হয়, আট ঘণ্টার বেশি সময় নিয়মিত ঘুমালে হৃদযন্ত্রের সমস্যা বাড়তে থাকে। অতিরিক্ত ঘুমান এমন তিন হাজার মানুষের ওপর পরীক্ষা চালিয়ে দেখা গেছে, অন্যদের অপেক্ষা দ্বিগুণ পরিমাণ এনজিনা এবং দেড়গুণ করোনারি আর্টেরি রোগের ঝুঁকিতে ভোগেন তাঁরা।

আলঝাইমার রোগ

যারা বেশি ঘুমায় তাদের আলঝাইমার রোগ হওয়ার আশঙ্কা বাড়ে। বেশি ঘুমালে মস্তিষ্কের বয়স বাড়ে। আর এ থেকে এই সমস্যা হতে পারে।

কোমর ব্যথা

বেশি ঘুমানো কোমর ব্যথার একটি কারণ। টানা ভুল অঙ্গ বিন্যাসে শোয়া পেশির ব্যথা ও জড়তা তৈরি করে। আর এ থেকে কোমর ব্যথা হওয়ার আশঙ্কা বাড়ে।

ক্লান্তিকর ঘুম

অতিরিক্ত ঘুম আপনাকে ক্লান্ত করে তুলবে। আর দিনের বেলার অবসন্নতা কর্মক্ষমতা কমিয়ে দেবে।

গর্ভধারণে সমস্যা করে

কোরিয়ায় এক গবেষণায় দেখানো হয়, অতিরিক্ত ঘুমের কারণে নারীদের গর্ভধারণের ক্ষমতা হ্রাস পায়। প্রায় ৬৫০ জন নারীর ওপর এ গবেষণা পরিচালিত হয়। খ্যাতিমান অ্যান্ডোক্রাইনোলজিস্ট ড. ইভান রোজেনব্লাথ বলেন, ঘুমের সঙ্গে দেহের ২৪ ঘণ্টার জৈবিক চক্র, হরমোন ক্ষরণ এবং ঋতুস্রাবের বিষয়টি জড়িত। এসব আবার গর্ভধারণের সঙ্গে সরাসরি সম্পর্কযুক্ত।

ডায়াবেটিসের শঙ্কা বাড়ে

কানাডার কুইবেক বিশ্ববিদ্যালয়ের এক গবেষণায় বলা হয়, রাতে আট ঘণ্টার বেশি ঘুমের কারণে রক্তের গ্লুকোজ নিয়ন্ত্রণের ক্ষমতা হারায় দেহ। এতে টাইপ ২ ডায়াবেটিসের শঙ্কা বেড়ে যায়।

আয়ু কমতে পারে

১৬টি ভিন্ন ভিন্ন গবেষণা নিয়ে একটি রিভিউ প্রকাশিত হয়। সেখানে বলা হয়, যাঁরা বেশি ঘুমান তাঁদের দ্রুত মৃত্যুর শঙ্কা অন্যদের চেয়ে ১ দশমিক ৩ শতাংশ বেশি থাকে। ওই গবেষণাগুলো ১৩ লাখ ৮২ হাজার ৯৯৯ জন মানুষের ওপর পরিচালিত হয়।

Related Posts

© 2022 Totka24x7 - Theme by WPEnjoy · Powered by WordPress