কাঁদলে শরীরের যত উপকার হয়? জানাচ্ছে নতুন গবেষণা

হাসি-কান্না নিয়েই সবার জীবন। আনন্দে হাসি ও দুঃখে অঝরে কান্না করা, আমাদের সহজাত প্রবৃত্তি। আবার অনেকেই বেশি খুশি হলেও কেঁদে ফেলেন। বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, আবেগের বহিঃপ্রকাশ হিসেবে নানা সময় আমরা কেঁদে থাকি।

তবে বেশিরভাগ মানুষই দুঃখ বা কষ্টে পেলে কান্না করেন। অনেকেই বলেন, কান্না করলে নাকি মনের কষ্ট কমে যায়। এই কান্নাই আমাদের শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্যে নানারকম প্রভাব ফেলে।

জানলে অবাক হবেন, কান্নার বেশ কিছু উপকারিতাও আছে। কাঁদলে বিভিন্ন সমস্যার সমাধান হয়, বলে মত বিশেষজ্ঞদের। চলুন তবে জেনে নেওয়া যাক, কান্নার কী কী উপকারিতা আছে-

বিশেষজ্ঞদের মতে, কাঁদলে শরীর থেকে নানা ধরনের দূষিত পদার্থ বের হয়ে যায়। পরিবেশ দূষণের কারণে চোখে যে ধুলা-বালি, ধোঁয়া বা নোংরা প্রবেশ করে, কাঁদলে চোখের পানির সঙ্গে তা বেরিয়ে আসে।

চোখের জলে ৯৮ শতাংশ পানি আর বাকিটুকুতে থাকে স্ট্রেস হরমোন ও টক্সিন। গবেষকরা বিভিন্ন পরীক্ষা করে দেখেছেন, চোখের জলের মাধ্যমে শরীর থেকে বেশ কিছু টক্সিন নির্গত হয়ে যায়।

অন্যদিকে মনোবিদদের মতে, কাঁদলে মন অনেকটা হালকা হয়ে যায় ও মেজাজেরও পরিবর্তন ঘটে। অনেক ক্ষেত্রেই কান্নার পর বহু মানুষ নতুন করে কাজের উদ্যম খুঁজে পান।

বিশেষজ্ঞরা আরও বলছেন, কাঁদলে চোখের শুষ্কতাও দূর হয়। বিশেষ করে যারা ড্রাই আইয়ের সমস্যায় ভোগেন, তাদের জন্য কান্না হতে পারে উপকারী।

জানলে অবাক হবেন, কান্না করলে ওজনও কমে। বিশেষজ্ঞদের মতে, কান্নার সময় শরীর থেকে ক্যালোরি বার্ন হয়। এ কারণেই কান্নার মাধ্যমেও অতিরিক্ত ওজন কমানো সম্ভব।

Related Posts

© 2022 Totka24x7 - Theme by WPEnjoy · Powered by WordPress