সন্তান ধারণে সমস্যা? তাহলে এর থেকে মুক্তি পেতে এই নিয়মগুলি মেনে চলুন, জেনেনিন বিস্তারিত

যত দোষ নন্দ ঘোষ এর মতোই মা হতে না পারার কারণ হিসেবে দায়ী করা হয় মহিলাদেরই। ভারতীয় সমাজ ব্যবস্থায় বন্ধ্যাত্ব এমন একটি সমস্যা যা বহু বিবাহিত দম্পতির মন এবং পরিবারকে তছনছ করে দেয়। এক্ষেত্রে সমাজ কিন্তু মহিলাদের দিকেই আঙুল তোলে। কিন্তু বিজ্ঞানী ও চিকিৎসকদের মতে, বন্ধ্যাত্বের কারণ শুধুমাত্র মহিলারা নয়, পুরুষরাও সমানভাবে দায়ী।

বেঙ্গালুরুর একটি মেডিক্যাল টেকনোলজি সংস্থার গবেষণা অনুযায়ী, ভারতে ১০-১৫ শতাংশ বিবাহিত দম্পতি বন্ধ্যাত্বের মুখোমুখি হন। এখনও পর্যন্ত মোট জনসংখ্যার প্রায় ২৭.৫ মিলিয়ন দম্পতি বন্ধ্যাত্বের সমস্যায় ভুগছেন। কারণ, বর্তমান সময়ে দাঁড়িয়ে অনিয়মিত জীবনযাত্রা, বেশি বয়সে বিয়ে, মাত্রাতিরিক্ত ওজন বৃদ্ধি, শরীরে ফ্যাট, খাওয়া-দাওয়ার অযত্ন ও মানসিক চাপ সন্তান জন্ম দেওয়ার পথে বাধা হয়ে দাঁড়াচ্ছে। আর এই সমস্যা কিন্তু দিন দিন বেড়েই চলেছে।

তবে একটু স্বাভাবিক এবং স্বাস্থ্যকর জীবনযাপন করলে বন্ধ্যাত্বের সমস্যা থেকে অনেকটাই মুক্তি পাওয়া যায়। সাধারণ কিছু নিয়মকানুন মেনে চললেই মহিলারা অনায়াসেই সন্তান ধারণে সক্ষম হয়ে উঠবেন। চলুন জেনে নিন সেই পদ্ধতিগুলি।

মহিলাদের বন্ধ্যাত্বের কারণ কী?
১) বেশি বয়সে বিয়ে

২) অত্যাধিক মোটা হয়ে যাওয়া বা ওজন বৃদ্ধি

৩) অনুপযুক্ত পুষ্টি

৪) প্রোল্যাকটিনের মাত্রা বৃদ্ধি পাওয়া

৫) পলিসিস্টিক ওভারিয়ান সিনড্রোম

৬) এন্ডোমেট্রিওসিস এর উপস্থিতি

৭) বিভিন্ন শারীরিক অসুস্থতা

৮) ধূমপান ও মদ্যপান

৯) একের অধিক জনের সঙ্গে শারীরিক মিলন

বন্ধ্যাত্ব দূরীকরণের উপায়

১) চাপমুক্ত থাকুন
বন্ধ্যাত্বের একটি বড় কারণ হলো মানসিক চাপ। বন্ধ্যাত্ব প্রতিরোধের ক্ষেত্রে নিজেকে মানসিক চাপ থেকে দূরে রাখুন। মনকে ভালো রাখার উপায় খুঁজে বার করুন এবং অবসর সময় সেগুলি করুন। পাশাপাশি পর্যাপ্ত বিশ্রাম নিন এবং ঘুমোন।

২) শারীরিক চর্চা করুন
নিজেকে সুস্থ রাখতে এবং শারীরিক ওজন নিয়ন্ত্রণ ও ফ্যাটকে দূর করতে নিয়মিত শরীরচর্চা করুন। বেশি বা খুব কম ওজন সন্তান ধারণের ক্ষেত্রে বড় বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারে। তাই বন্ধ্যাত্ব দূরীকরণের ক্ষেত্রে শরীরচর্চা বিশেষ ভূমিকা পালন করে।

৩) ধূমপান ও মদ্যপান থেকে দূরে থাকুন
অতিমাত্রায় ধূমপান ও মদ্যপান মহিলাদের প্রজনন ক্ষমতা নষ্ট করে দেওয়ার ক্ষেত্রে বিশেষ ভূমিকা পালন করে। তাই এখনই এই খারাপ অভ্যাসগুলি ত্যাগ করুন।

৪) মৌসুমী ফল ও সবজি খান
মৌসুমী ফল বা সবজিতে থাকে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, যা বন্ধ্যাত্ব দূর করতে ও শরীরকে সুস্থ রাখতে সাহায্য করবে। যেমন বাঁধাকপি, ঢ্যাঁড়স, কুমড়ো, পেয়ারা, আম, আপেল, আঙুর, তরমুজ, আমলকি, রসুন, মধু, ব্রকলি, চেরি, বিট, গাজর, দুধ, দই ও ভিটামিন-ই সমৃদ্ধ খাবার খান।

৫) কফি খাওয়া কমান
গবেষণায় দেখা গেছে যে, ক্যাফেইন সারাদিনে ২০০ মিলিগ্রামের চেয়ে বেশি গ্রহণ করলে গর্ভবতী হওয়ার ক্ষমতাকে নষ্ট করে দেয়। তাই সারাদিনে ৬ থেকে ৮ কাপ কফি খাওয়ার পরিবর্তে মাত্র এক থেকে দুই কাপ কফি খান।

Related Posts

© 2022 Totka24x7 - Theme by WPEnjoy · Powered by WordPress