নদীর জল শুকিয়ে গিয়ে উদ্ধার হল ১০০০ শিবলিঙ্গ

More articles

টোটকা24×7 নিউজ ডেস্ক: সৃষ্টিকর্তার শ্রেষ্ঠ এই দুনিয়াটা রহস্যে ঘেরা মানুষ চাঁদে মঙ্গলে চলে গেলেও আমাদের এই পৃথিবীর অনেক রহস্যই অজানাই রয়ে গেছে অনেক সময় প্রকৃতি পৃথিবীর রহস্য উন্মোচিত করে আবার অনেক রহস্য থাকে যেগুলো রহস্যই থেকে যায়,কথায় আছে বিশ্বাসে মিলায় বস্তু তর্কে বহুদূর ভগবান যাদের বিশ্বাস আছে তারা এ ঘটনা শুনলে অবাকই হবে হয়তো ভাববেন এটি ঈশ্বরেরই কোনো লীলা ।

আর যারা দৈবিক ঘটনায় বিশ্বাস করেন না তারাও অবাকই হবেন এর পিছনে বৈজ্ঞানিক কোন যুক্তি খুঁজবে । কিছুদিন আগে একটি নদী শুকিয়ে গিয়ে ভেসে উঠলো হাজারটি শিবলিঙ্গ এই নদীটি হল কর্নাটকের সালমালা নদী। এখনই নদী সহস্র লিঙ্গ নামে পরিচিত। উত্তর কর্নাটকের সিরসি থেকে 17 কিলোমিটার দূরে এই এলাকায় দেখতে পাওয়া যায় এই শিবলিঙ্গ গুলো প্রত্নতত্ত্ববিদরা মনে করে 1678 থেকে 1718 সালে সিরসির রাজা সদাশিব রায় এই শিবলিঙ্গ গুলো তৈরি করেছিলেন।

তিনি ছিলেন শিব ভক্ত তাই শিবের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতেই এই উদ্যোগ নিয়েছিলেন শিবলিঙ্গ গুলি ঘিরে ছিল পাথরের ষাঁড় মূর্তি। তিনি মনে করতেন এই মুর্তিগুলি অমূল্য শিব মূর্তি গুলো কে রক্ষা করবে রাজার মৃত্যুর পর এই শিবলিঙ্গ গুলি শালমালা নদী গ্রাস করে নেয় ফলে এত বছর ধরে মূর্তি গুলির কোন খোঁজ পাওয়া যায়নি এখন বর্তমানে তাপমাত্রা বৃদ্ধির কারণে জল শুকিয়ে গেছে নদীটির যার ফলে আবার উদ্ধার হয়েছে এই প্রাচীন মূর্তি গুলি।

Latest