দাঁড়িয়ে জল পান করে যেসব ক্ষতি করছেন নিজের

জল কেবল তৃষ্ণাই মেটায় না, শরীরে জলর ভারসাম্যও ঠিক রাখে। শরীরের প্রয়োজন অনুযায়ী কতটা জল কোন কোন কাজে ব্যবহৃত হবে তার মাত্রাও ঠিক হয়। চিকিৎসকদের মতে, দাঁড়িয়ে জল পান করার চেয়ে বসে জল পান করা অনেক বেশি স্বাস্থ্যসম্মত। শরীরের পেশি, হাড়, অঙ্গপ্রত্যঙ্গের অবস্থান, সবকিছুর সাথে সামঞ্জস্য রেখেই পান করতে হবে জল। রক্তচাপ, স্নায়বিক ক্রিয়াকলাপ, কিডনির কার্যকারিতা ইত্যাদি নানা দিক খতিয়ে দেখে, বসে জল পানেরই পরামর্শ দিচ্ছেন চিকিৎসকেরা।

হেলথ কেয়ার ডট কমের প্রতিবেদন অনুযায়ী দাঁড়িয়ে জল পানের ক্ষতিকর দিকগুলো সম্পর্কে তুলে ধরা হলো-

স্নায়বিক উত্তেজনার দিক খতিয়ে দেখলে বসে জল পান করাই ভালো। চিকিৎসকদের মতে, দাঁড়িয়ে জল পান করলে স্নায়ু উত্তেজিত হয় ও রক্তচাপ বেড়ে যায়।

বেশিরভাগ সময়ে দাঁড়িয়ে জল পান করলে কিডনির কার্যক্ষমতা কমে যায়। শরীরের ভেতরের ছাঁকনিগুলি কুঁচকে যায় ও নেফ্রনগুলো শরীর থেকে টক্সিন সরানোর সুযোগ পায় কম। তাই শরীরকে পরিশ্রুত করার কাজ বাধা পায়।

দাঁড়িয়ে জল পান করলে তা সরাসরি পাকস্থলীতে গিয়ে ধাক্কা দেয়। পাচকরসের ক্ষরণ কমে হজমের সমস্যা দেখা যায়।

আরও পড়ুন: শুধু কী ফুসফুস, কোভিডে ক্ষতি হয় পুরুষের যৌন স্বাস্থ্যও: গবেষণা

এভাবে জল খেলে তা হৃদযন্ত্রের ওপরেও অতিরিক্ত চাপ ফেলে। বুকের পেশির উপর এই চাপের ফলে বিষম খাওয়া থেকে শুরু করে শ্বাসরোধ পর্যন্ত হতে পারে।

জল পানের নিয়ম:

শরীর অনুযায়ী জলর প্রয়োজন বাড়ে-কমে। নিজের শরীরে কতটুকু জল প্রয়োজন তা জেনে নিন চিকিৎসকের কাছ থেকে। এক জায়গায় বসে ছোট ছোট চুমুকে ধীরেসুস্থে জল খান। জল পান করার সময় কথা বলার চেষ্টা বা হাঁপাতে হাঁপাতে জল পান করলে তা যেকোনো সময় শ্বাসনালীতে গিয়ে বড় বিপদ ঘটাতে পারে। তাই এড়িয়ে চলুন সেসব।

Related Posts

© 2022 Totka24x7 - Theme by WPEnjoy · Powered by WordPress