সুন্দর থাকতে তালিকায় রাখুন এসব খাবার, জেনেনিন বিস্তারিত ভাবে

কথায় আছে, প্রথমে দর্শনধারী, পরে গুণবিচারী। প্রবাদবাক্যটির সঙ্গে কমবেশি সবাই পরিচিত। এটি নিয়ে তর্ক থাকলেও কে না চায়, তাকে সুন্দর দেখাক।

ভারতের সংবাদমাধ্যম দ্য ওয়ালের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সুষম খাবার খেলে, ভেতর থেকে সুস্থ থাকলে, তার প্রতিচ্ছবি চেহারাতেও পড়ে। শুধু প্রসাধনীর সাহায্যে ঝলমলে ত্বক বা চেহারা পাওয়া পুরোপুরি সম্ভব নয়। কোন কোন খাবারে ত্বক ভালো থাকে? খাবার তালিকায় কী কী থাকলে চেহারা আরও প্রাণোজ্বল হয়, জেনে নিন।

সামুদ্রিক মাছ
বেশিরভাগ সামুদ্রিক মাছে রয়েছে ভরপুর ওমেগা ৩ ফ্যাটি অ্যাসিড। এই ফ্যাট ত্বক ও শরীরের যে কোনো ধরনের ইনফ্ল্যামেশন বা প্রদাহ প্রতিরোধ করে। তাছাড়া ত্বকের কোলাজেন রক্ষার্থেও এই ওমেগা ৩ এর ব্যাপক ভুমিকা রয়েছে। তাই ত্বকের ভালোর জন্য সামুদ্রিক মাছ দুর্দান্ত।

তিসি
স্বাস্থ্যসচেতন মানুষ তিসির বীজের সঙ্গে পরিচিত। যা থেকে কিনা তৈরি হয় তিসির তেল। আমাদের ত্বকের কোলাজেনকে আরও বেশি বুস্ট করে এই তিসি। তিসির তেল দিয়ে রান্না করা যেতে পারে। অথবা অন্য কোনো রান্নাতেও তিসি বীজ বা তেল মিশিয়ে খাওয়া যেতে পারে। ত্বকের জন্য তিসি দারুন উপকারী।

চিয়া বীজ
যারা ডায়েট করেন বা সুন্দর চেহারার জন্য খাবারের তালিকা প্রস্তুত করেন, তাদের তালিকায় চিয়া সিড থাকেই। চিয়া সিড সালাদ, দই বা অন্য কোনও দানাশস্যের সঙ্গে সহজেই মিশিয়ে খাওয়া যায়।

আখরোট
ড্রাই ফ্রুটের মধ্যে আখরোটের কদর গোটা বিশ্বজুড়েই রয়েছে। কারণ এই ফলটির স্বাস্থ্য উপকারিতা অজস্র। ত্বকের জন্যও ভীষণ ভালো আখরোট ও আখরোটের তেল।

টমেটো
টমেটোতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে লাইকোপিন। যা কিনা এক প্রকারের অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট। সূর্যের অতিবেগুনি রশ্মি ও ফ্রী র‍্যাডিক্যালের হাত থেকে বাঁচাতে সাহায্য করে অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট। এর উপস্থিতি ত্বককে নরম ও মসৃণ করে।

লেবুজাতীয় ফল
লেবুজাতীয় ফলে থাকে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি ও ভিটামিন ই। ত্বকের কুঁচকে যাওয়া প্রতিহত করে ত্বকের বয়স বাড়তে দেয় না এই দুই ভিটামিন। কমলা, মুসাম্বি, পাতি লেবু, আঙুরে ভরপুর ভিটামিন থাকে।

ক্যাপসিকাম
লাল, হলুদ, সবুজ, কমলা– সব রঙের ক্যাপসিকামই ভিটামিন সি সমৃদ্ধ। যা ত্বক টানটান রাখে, বয়সের ছাপ পড়তে দেয় না।

বিদেশি ফল হলেও স্ট্রবেরি দেশে এখন বেশ পরিচিতি পেয়েছে। ফ্রুট সালাদ বা স্মুদিতে ভিটামিন সি ভরপুর এই দুইটি ফল রাখতেই পারেন। ত্বকের তারুণ্য বজায় রাখতে দারুণ কার্যকর।

আমন্ড
ভিটামিন ই ঠাসা এই ড্রাই ফ্রুটটিতে। প্রতিদিন এক মুঠো আমন্ড রাখুন খাবারে। আমন্ড অয়েলও ব্যবহার করতে পারেন।

ডার্ক চকলেট
চকলেট খেতে চায় সবাই-ই। তবে ডার্ক চকলেট খাওয়াই ভালো। এতে থাকে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট। সূর্যের প্রখর রশ্মি ও দূষণ থেকে ত্বককে বাঁচাতে পারে অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট। তবে ভালো বলেই অতিরিক্ত চকলেট খাওয়া যাবে না। রোজ দুয়েকটার বেশি নয়।

Related Posts

© 2022 Totka24x7 - Theme by WPEnjoy · Powered by WordPress