গলা, মাথা ও পেটে ব্যথা দূর করার কিছু সহজ টোটকা?

আপনার মনে হতে পারে, এ আর এমন কী! সামান্য মাথাব্যথাই তো! কিংবা গলাব্যথা, পেটে ব্যথা এসব কোনো অসুখ হলো! সত্যি বলতে প্রত্যেকটি অসুখই কষ্টদায়ক। শরীরের যেকোনো একটি অংশ ব্যথায় ভুগলে খারাপ লাগে পুরো শরীরই। কাজ করার ইচ্ছে কিংবা শক্তিও থাকে না অনেকসময়।

ওষুধ খেয়ে ব্যথা হয়তো কমিয়ে রাখা যায়, কিন্তু তার আবার অনেকরকম পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া থাকে। এরচেয়ে বরং ঘরোয়া উপায়ে ব্যথা দূর করা উত্তম। চলুন জেনে নেয়া যাক গলা, পেট কিংবা মাথাব্যথা হলে দূর করার উপায়-

গলা ব্যথা কমাতে
লবণ-জলে গার্গল: হালকা গরম জলে লবণ দিয়ে দিনে তিনবার গার্গল করলে গলাব্যথা কমবে। তবে জল বেশি গরম যেন না হয়। একটু সতর্ক থাকবেন, কারণ গার্গলিংয়ের সময় লবণ জল গিলে ফেললে কিন্তু পেটের সমস্যা দেখা দিতে পারে।

গরম ভাপ: সর্দি-কাশি, গলা ব্যথা, সাইনাসের মোক্ষম দাওয়াই গরম জল ভাপ নেয়া। একবাটি জল ফুটিয়ে নিন। এবার ফুটন্ত জলর ওপর মুখ রেখে চারপাশে তোয়ালে দিয়ে ঢেকে নিন। এবার বড় করে শ্বাস নিন। গরম বাষ্প ভেতরে ঢুকে গলিয়ে দেবে জমাট বাঁধা সর্দি। সর্দি তরল হয়ে বেরিয়ে এলেই কমবে সমস্যা। তবে দেখবেন, কোনোভাবে যেন মুখে-চোখে ফুটন্ত জল না ঢুকে যায়।

আনারস: আনারসে প্রদাহ কমানোর উপকরণ রয়েছে। তাই গলা ব্যথা হলে কয়েক টুকরো আনারস খেয়ে দেখতে পারেন। উপকার পাবেন।

পেটে ব্যথা কমাতে
আদা চা: খোসা ছাড়ানো এক টুকরো আদা থেঁতো করে চায়ের সঙ্গে ফুটিয়ে নিন। আদার রস গলা ব্যথা সারায়। হজমের সমস্যাও কমায়।

দারুচিনি চা: ক্যামোমিল বা দারুচিনির চা ক্যাফেইন মুক্ত হওয়ায় পেট ব্যথায় দারুণ উপকারী। ঘরোয়া উপায়ে পেটে ব্যথা কমাতে এই চা খেতে পারেন নিয়মিত।

গোলমরিচ-পুদিনা চা: গোলমরিচ, পুদিনা পাতা চায়ের সঙ্গে ফুটিয়ে খেলে দ্রুত কমে পেট ব্যথা।

মাথা ব্যথা কমাতে
ল্যাভেন্ডার অয়েল: মাথা ব্যথা কমাতে জলে ল্যাভেন্ডার পাতা সেদ্ধ করে চা বানিয়ে নিতে পারেন। ল্যাভেন্ডার তেল কপালে লাগালে ব্যথা কমে। ভাপ নেয়ার সময় জলে ল্যাভেন্ডার তেল মিশিয়ে নিতে পারেন। উপকার পাবেন।

বরফ: ব্যথায় মাথা তুলতে না পারলে তোয়ালে বা রুমালে একটুকরো বরফ নিয়ে কপালে ঘষুন। দেখবেন আস্তে আস্তে কমবে মাথাব্যথা। একটানা ঠান্ডা না নিতে পারলে কিছুক্ষণ থেমে আবার সেঁক বা মাসাজ করুন।

Related Posts

© 2022 Totka24x7 - Theme by WPEnjoy · Powered by WordPress