জীবনযাপন

আপনার ত্বকের কালো দাগ দূর করবে সহজ ছোট্ট একটি কাজ, জেনেনিন

মুখের সৌন্দর্য কমিয়ে দেওয়ার জন্য যেকোনো দাগই যথেষ্ট। মুখে কোনো কারণে কালো দাগ হলে তা দেখতে ভালোলাগে না। তখন সেই দাগ ঢাকতে নানা ধরনের প্রসাধনী ব্যবহার করেও মেলে না রক্ষা। কেউ আবার একধাপ এগিয়ে, পার্লারে গিয়ে কাড়ি কাড়ি পয়সা খরচ করেন। কিন্তু আশানুরূপ সমাধান মেলে না।

বাইরে থেকে কেনা কেমিক্যালযুক্ত প্রসাধনী ব্যবহার করলে সাময়িক সুবিধা পাওয়া যায় ঠিকই, তবে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই তৈরি হয় দীর্ঘ অসুবিধার। ত্বকে আরও অনেক সমস্যা ডেকে আনতে পারে এসব প্রসাধনী। তাই এক্ষেত্রে ঘরোয়া উপায় বেছে নেওয়া হবে বুদ্ধিামানের কাজ। মুখের কালো দাগ দূর করার জন্য প্রতি রাতে করতে হবে ছোট্ট একটি কাজ। চলুন জেনে নেওয়া যাক-

ত্বকের কালো দাগ দূর করার জন্য লেবু বেশ কার্যকরী। সব অ্যান্টি স্পট ফেয়ারনেস ক্রিমেই লেবুর কথা উল্লেখ করা থাকে। এর কারণ হলো এটি কাজ করে প্রাকৃতিক ব্লিচ হিসাবে। তবে লেবুর ব্যবহার করতে হবে রাতের বেলায়। দিনের বেলায় এটি করলে সূর্যের আলোর কারণে এটি ত্বকে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করতে পারে। রাতে এই রূপচর্চা করলে গরম বা সূর্যের আলোর কারণে ক্ষতি হওয়ার ভয় নেই। সেইসঙ্গে দাগ দূর করার জন্য ত্বক পাবে অনেকটা সময়।

এক্ষেত্রে আপনি দুটি পদ্ধতি অবলম্বন করতে পারেন। ত্বক স্বাভাবিক হলে মিনিট পাঁচেক সময় দিলেই যথেষ্ট। অপরদিকে যদি আপনার ত্বক হয় শুষ্ক বা সেনসিটিভ, সেক্ষেত্রে সময় লাগবে আধা ঘণ্টার মতো।

রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে মুখ ভালোভাবে পরিষ্কার করে নিন। আপনার ত্বকের উপযোগী কোনো ফেসওয়াশ দিয়ে মুখ ধুয়ে নিন। এরপর পরিষ্কার তোয়ালে দিয়ে মুখ মুছে নিতে হবে। আপনার ত্বক যদি স্বাভাবিক বা তৈলাক্ত হয়, তাহলে লেবুর রস সরাসরি দাগের স্থানে ব্যবহার করতে পারবেন। এক্ষেত্রে লেবুর সঙ্গে মেশাতে পারেন সামান্য মধু। এটি শুকাতে সময় দিন। এভাবেই ঘুমিয়ে পড়ুন। স্বাভাবিক বা তৈলাক্ত ত্বক হলে কোনো সমস্যা হবে না। সকালে উঠে পরিষ্কার ঠান্ডা জলে মুখ ধুয়ে নেবেন।

যাদের ত্বক সেনসিটিভ বা শুষ্ক হয়ে থাকে সেক্ষেত্রে শুধু লেবুর রস যথেষ্ট নয়। এর সঙ্গে মেশাতে হবে মধু ও মুলতানি মাটি। মিশ্রণটি দাগের স্থানে মেখে রাখতে হবে আধাঘণ্টার মতো। এরপর ধুয়ে ফেলতে হবে। এভাবে নিয়মিত ব্যবহার করলে দ্রুতই উপকার পাবেন।

Related Articles

Back to top button