জীবনযাপন

কেউ মিথ্যা বললে বুঝবেন যেভাবে, জেনেনিন

মিথ্যাবাদীরা এতটা কৌশলী হয় যে আপনি চাইলেও তাকে ধরা সহজ হবে না। তারা আপনাকে বেশ ধূর্তভাবে এড়িয়ে যাবে। তবুও, একজন মানুষ যতই চেষ্টা করুক, মিথ্যাকে সত্যি করতে গেলে কিছু অস্বাভাবিকতা থেকেই যায়। কিছু নির্দিষ্ট বিষয় খেয়াল করলে আপনি বুঝতে পারবেন সে আসলেই মিথ্যা বলছে কি না। সুতরাং, মিথ্যাবাদীকে চিহ্নিত করা সবসময় অসম্ভব নয়। কেউ মিথ্যা বললে সহজে বুঝতে পারার আছে কিছু কৌশল-

আই কন্ট্যাক্ট

মিথ্যাবাদীরা যখন মিথ্যা বলবে তখন সরাসরি আপনার চোখের দিকে তাকাবে না। তারা আপনার চোখ এড়িয়ে এদিক ওদিক তাকাবে। তারা দ্রুত পলক ফেলতে পারে বা ঘন ঘন উপরের দিকে তাকাতে পারে।

বডি ল্যাঙ্গুয়েজ

একজন ব্যক্তির বডি ল্যাঙ্গুয়েজ তার সম্পর্কে অনেক কিছু বলতে পারে। একজন মিথ্যাবাদী সাধারণত নিজেকে আবদ্ধ রাখে। তারা তাদের হাত লুকিয়ে রাখবে, অথবা নার্ভাস হয়ে তাদের পা টোকাও দিতে পারে। অদ্ভুতভাবে ঠোঁট চাটা বা চেপে ধরা মিথ্যা বলার আরেকটি লক্ষণ হতে পারে।

বিষয় পরিবর্তন করা

একজন মিথ্যাবাদী সবসময় বর্তমান বিষয় পরিবর্তন করার চেষ্টা করবে। মিথ্যা বলার সময় তারা দুর্বল বোধ করে। সুতরাং, তারা বিষয় পরিবর্তন করার চেষ্টা করে যাতে তাদের আর কোনো মিথ্যা বলতে না হয়, এবং যাতে শ্রোতা সত্য প্রকাশের জন্য আরও বেশি চেষ্টা না করে।

প্রতিরক্ষামূলকতা

আপনি যখন সম্ভাব্য সত্য সম্পর্কে একজন মিথ্যাবাদীর মুখোমুখি হন, তখন তারা রক্ষণাত্মক হয়ে ওঠে এবং তাদের প্রশ্ন না করে নিজের সম্পর্কে আপনাকে আক্রমণ করতে শুরু করে। তারা অত্যধিক প্রতিরক্ষামূলক হয়ে ওঠে এবং কোনো প্রশ্নের উত্তর দিতে অস্বীকার করে। এমনকি তারা কথোপকথনটি আপনার দিকে সরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে।

ঘাম

একজন মিথ্যাবাদীর অতিরিক্ত ঘাম হবে কারণ তারা মিথ্যা বলার সময় চাপ এবং উদ্বিগ্ন বোধ করে। ঘাম হওয়া একটি ইঙ্গিত যে ব্যক্তি খুব চাপযুক্ত এবং সম্ভবত মিথ্যা কথা বলছে।

ধীরে শ্বাস নেওয়া

লোকেরা যখন মিথ্যা বলে তখন ভারী এবং ধীরে ধীরে শ্বাস নেয়। তাদের শ্বাস-প্রশ্বাস অগভীর হয়ে যায়, কারণ তারা নার্ভাস বা চাপে থাকলে হৃদস্পন্দন আমূল বৃদ্ধি পায়। আর এগুলোর সাহায্যে আপনি সহজেই শনাক্ত করতে পারবেন যে কোনো ব্যক্তি মিথ্যা বলছে কি না।

Related Articles

Back to top button