ঠান্ডায় নাক বন্ধ হওয়া খুবই স্বাভাবিক, সর্দিতে শিশুর নাক বন্ধ হলে যা করবেন, জেনেনিন

গরমে বেশিরভাগ শিশুই সর্দি-জ্বরে ভোগে। আর ঠান্ডায় নাক বন্ধ হওয়া খুবই স্বাভাবিক। সামান্য সর্দিতেই শিশুর নাম বন্ধ হয়ে যায়। এর প্রধান কারণ হলো শিশুদের অনুনাসিক পথ খুব ছোট হয়।

তাই শিশু সর্দিতে ভুগলে সতর্ক থাকতে হবে। শিশুর নাকে খুব বেশি শ্লেষ্মা জমলে তাদের জন্য খাওয়া বা শ্বাস নেওয়া কঠিন হয়ে ওঠে।

তাই যত দ্রুত সম্ভব এ সময় শিশুর নাকের বন্ধভাব খুলতে ঘরোয়া উপায় অনুসরণ করুন। জেনে নিন করণীয়-

>> প্রাপ্তবয়স্ক কিংবা শিশু উভয়ের ক্ষেত্রেই সরিষার তেল মালিশ করা ঠান্ডা ও নাক বন্ধের চিকিৎসায় কার্যকরী ভূমিকা রাখে। এজন্য সরিষার তেলে কয়েকটি লবঙ্গ, রসুন কুচি ও মেথির বীজ কিছুটা গরম করে নিন।

তারপর তেল ঠান্ডা হলে নাকের আশপাশে, কপাল, গাল, বুক ও পিঠে আলতোভাবে মালিশ করুন সরিষার তেল।

>> স্যালাইন ড্রপস নাকের বন্ধভাব খুলতে ম্যাজিকের মতো কাজ করে। বিভিন্ন ওষুধের দোকানে স্যালাইন ন্যাসাল ড্রপ খুঁজে পাবেন। শিশুর প্রতিটি নাকের ছিদ্রে ২-৩ ফোঁটা করে স্যালাইন ড্রপ দিলেই নাক পরিষ্কার হয়ে যাবে।

>> প্রচুর পরিমাণে তরল পান করাতে হবে শিশুকে। পর্যাপ্ত জল শ্লেষ্মা পাতলা করতে সাহায্য করতে পারে। ফলে বুকে কফ জমে যাওয়ার সমস্যা এড়ানো যায়।

>> সর্দি-জ্বরে শিশুকে বারবার বুকের দুধ খাওয়াতে হবে। কারণ বুকের দুধে কিছু প্রয়োজনীয় পুষ্টি উপাদান ও অ্যান্টিবডি আছে যা শিশুর রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে শক্তিশালী করে। ফলে শিশু দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠবে।

>> শিশুকে স্টিম ইনহেলেশন দিতে একটি উষ্ণ ও বাষ্পযুক্ত ঘরে রাখুন কিংবা হালকা গরম জল দিয়ে স্নান করান। এতে শিশুর শ্লেষ্মা পরিষ্কার হবে ও শ্বাস নিতেও আর কষ্ট হবে না।

>> শিশুকে এ সময় চিকেন স্যুপ খাওয়াতে পারেন। এটি প্রদাহ কমিয়ে অবরুদ্ধ নাক উপশম করতে পারে। কিছু গবেষণা দেখা গেছে, চিকেন স্যুপ শ্বাসনালির প্রদাহ কমাতে পারে

Related Posts

© 2023 Totka24x7 - Theme by WPEnjoy · Powered by WordPress