বাজারে আসছে ভারতের দ্রুততম ইলেকট্রিক বাইক, এক চার্জেই ছুটবে ১১০ কিমি

 

বর্তমানে করোনা আতঙ্কে ভুগছে গোটা দেশ। সংক্রমণের হাত থেকে বাঁচতে সকলেই গণপরিবহন বাদ দিয়ে বাইক , স্কুটি বা প্রাইভেটকারকেই বেঁছে নিতে চাইছেন। আর এই কঠিন সময়ে বাইক প্রেমীদের জন্য সুখবর। এবার বাজারে আসতে চলেছে খোদ ভারতের তৈরি ইলেকট্রিক বাইক। এক চার্জে চলবে ১১০কিমি।

সম্প্রতি স্বদেশী কোম্পানি One Electric ঘোষণা করেছে এবার ভারতের মাটিতে ছুটবে সম্পূর্ণরূপে ভারতে তৈরি বাইক। এই বাইকের নাম হবে Kridn। আর সবথেকে খুশির খবর এই বাইকটি হতে চলেছে ভারতের সব থেকে দ্রুততম ইলেকট্রিক বাইক। আসুন জানা যাক এই বাইকে কি কি সুবিধা পাওয়া যাবে।

kridn এই বাইক ৫.৫ কিলোওয়াট ক্ষমতা বিশিষ্ট ইলেকট্রিক মোটর। এই মোটর ১৬৫ ন্যানোমিটারের টর্ক জেনারেট করতে পারবে। এতে থাকছে একটি ৩ কিলোওয়াট ঘন্টা ক্ষমতা বিশিষ্ট লিথিয়াম ব্যাটারি এবং ইকো মোডে ১১০ কিলোমিটার অব্দি চলতে পারবে এই বাইক। পাশাপাশি সাধারণ মোডে এই বাইক চলতে পারবে ৮০ কিলোমিটার। জানিয়ে রাখি এই বাইকে ০ থেকে ৬০ কিলোমিটার এর স্পিড তুলতে মাত্র ৮ সেকেন্ড সময় লাগবে যা সত্যিই অবিশ্বাস্য।এই বাইকের টপ স্পিড হবে ৯৫ কিলোমিটার প্রতি ঘন্টা। এই বাইকে থাকছে টিউবলেস টায়ার। এমনকি ডিজিটাল ক্লাস্টার, অপশনাল জিপিএস এবং অ্যাপ্লিকেশন কানেক্ট-র অপশন রয়েছে। এই বাইকে ব্যাটারি চার্জ করতে ৪ থেকে ৫ ঘন্টা সময় লাগবে। এই বাইকটি গিয়ারলেস। এখানে ফ্রন্ট সাসপেনশন, টেলিস্কোপিক হাইড্রোলিক এবং রিয়ার হাইড্রোলিক ব্রেক থাকছে।

বেঙ্গালুরু, চেন্নাই, দিল্লি এনসিআর, এবং হায়দারাবাদ শুধুমাত্র এই চারটি শহরে বাইকটি মিলবে। কেবলমাত্র এই চারটি জায়গায় বুকিং রেজিস্ট্রেশন করা সম্ভব হবে।Kridn বাইকের ডেলিভারি অক্টোবর মাস থেকে চালু করা হবে। বর্তমানে এই বাইকের কিছু অন রোড ট্রায়াল চালানো হচ্ছে। এই নতুন Electric Kridn এর এক্স শোরুম প্রাইস ১.২৯ লক্ষ টাকা রাখা হয়েছে। জানিয়ে রাখি শুধু এই বাইকটি নয়, কোম্পানি Kridn R নামে আরও একটি নতুন বাইক লঞ্চ করতে চলেছে। Kridn বাইকের একটি এন্ট্রি লেভেল মডেল লঞ্চ করা হবে যাতে ৭৫ কিলোমিটার প্রতি ঘন্টার টপ স্পিড দেওয়া হবে। শুধু তাই না ২ কিলোওয়াটের মোটর দেওয়া হবে ।