প্রিয়াঙ্কা রেড্ডির খুনিদের এনকাউন্টার করে মহা সমস্যায় পড়লো পুলিশ! মৃতদেহের ভার পুলিশের কাঁধে

More articles

অরূপ মাহাত: শুক্রবার ভোর সাড়ে ৩ টা নাগাদ পুলিশের এনকাউন্টারে মৃত্যু হয় ৪ অভিযুক্তের। ঘটনার পুনর্নির্মাণের সময় পুলিশের অস্ত্র কেড়ে নিয়ে পালানোর চেষ্টা করলে এনকাউন্টারে মৃত্যু হয় অভিযুক্তদের। সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে এমনটাই জানিয়েছেন হায়দ্রাবাদ পুলিশের প্রধান ভিসি সজ্জনার।

৪ অভিযুক্তের মৃত্যুর খবরে খুশির হাওয়া সারাদেশে। তবে তাদের মৃতদেহ নিতে অস্বীকার করলো পরিবার। সূত্রের খবর, মৃতদেহগুলি সৎকারের ব্যবস্থা করবে পুলিশই। ঘটনাস্থল থেকে মৃতদেহগুলি সরিয়ে এনে খবর দেওয়া হয়েছিল প্রত্যেকের বাড়িতে। কিন্তু পরিবারের সদস্যরা দেহগুলি নিতে অস্বীকার করেন। শুধু তাই নয়, অভিযুক্তদের জন্য কোনরূপ আগ্রহই দেখায়নি পরিবারের সদস্যরা। ফলে পুলিশের তত্ত্বাবধানেই সৎকার করা হবে অভিযুক্তদের মৃতদেহ।

প্রসঙ্গত, এনকাউন্টারের খবরে খুশি নির্যাতিতার পরিবার। তার বাবা বলেন, ‘১০ দিন পর মেয়েটা শান্তি পেল।’ অন্যদিকে এক অভিযুক্ত চেন্নাকাভেসুলুর সন্তান সম্ভবা স্ত্রী রেনুকা গোটা প্রক্রিয়া নিয়েই প্রশ্ন তোলেন। আরেক অভিযুক্ত জল্লু শিবের বাবা সারাদেশের ধর্ষকদের একই রকমভাবে এনকাউন্টারে হত্যা করার দাবি জানান।

Latest