Big Breaking : প্রিয়াঙ্কা রেড্ডির ধর্ষকদের এনকাউন্টার করায় পুলিশের বিরুদ্ধে মামলা সুপ্রিম কোর্টে!

More articles

২৭ নভেম্বর ভয়ঙ্কর নির্যাতনের ঘটনায় কেঁপে উঠেছিল গোটা দেশ। ২৬ বছর বয়সী তরুণী পশু চিকিৎসককে গণধর্ষণের পর পুড়িয়ে মারা হয় হায়দ্রাবাদের সামসাবাদে। টোলপ্লাজার কাছ থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে এক ব্রিজের নীচে সম্পূর্ণ দগ্ধ অবস্থায় ফেলে রেখে পালায় দুষ্কৃতীরা। ঘটনার ৪৮ ঘন্টার মধ্যেই ৪ অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। শুক্রবার ভোর রাতে পুলিশের এনকাউন্টারে মৃত্যু হয় ৪ জনেরই। সারা দেশ হায়দ্রাবাদ পুলিশের প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়ে ওঠে। কিন্তু বাদ সাধলো মানবাধিকার কমিশন।

মানবধিকার কমিশন ও মহিলা কমিশন দুই স্বনিয়ন্ত্রিত সংস্থা জানিয়েছে, এনকাউন্টারের তদন্ত চেয়ে আদালতের দ্বারস্থ হচ্ছে তারা। তাদের দাবি, এই এনকাউন্টার একটি সাজানো ঘটনা। পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে খুন করা হয়েছে ৪ অভিযুক্তকে। এর পেছনে এক গভীর ষড়যন্ত্র রয়েছে বলে দাবি তাদের। অভিযুক্তরা দোষী হলে আদালতে তাদের সর্বোচ্চ সাজা হতো এ বিষয়ে কোন সন্দেহ নেই। তাহলে কাদের আড়াল করতে এমন ঘৃণ্য চক্রান্তের আশ্রয় নিতে হলো পুলিশকে, প্রশ্ন তুলেছে তারা। এই এনকাউন্টারের ঘটনায় ইতিমধ্যে দুটি পৃথক মামলা দায়ের করেছেন দুই আইনজীবী।

Latest