কোষ্ঠকাঠিন্য ও ডায়রিয়ার সমস্যা দূর করতে খান এই একটি মাত্র ফল-

More articles

অতিপরিচিত সুস্বাদু সাইট্রাস ফল বাতাবি লেবু যা অন্যান্য ফলের তুলনায় আকৃতিতে অনেকটাই বড় হয়। বাতাবি লেবুর বাইরের অংশটি হালকা সবুজ বা হলুদ বর্ণের হয়ে থাকে এবং ভেতরের অংশটি সাদা, লাল বা হালকা গোলাপী রংয়ের হয়। গ্রীষ্মকালীন ফল টি অত্যন্ত সুস্বাদু ও স্বাস্থ্যকর হয়ে থাকে। ১০০ গ্রাম বাতাবিলেবুতে ৩৮ ক্যালরি, ২১৬ মিলিগ্রাম পটাশিয়াম, ১ মিলিগ্রাম সোডিয়াম, ১০ গ্রাম কার্বোহাইড্রেট, ১ গ্রাম আঁশ, ০.৮ গ্রাম প্রোটিন, ১ ভাগ ম্যাগনেসিয়াম, ১০১ ভাগ ভিটামিন সি পাওয়া যায়। জেনে নিন বাতাবি লেবু খাওয়ার কিছু স্বাস্থ্য উপকারি দিক।

১: বাতাবি লেবু ত্বকের সুরক্ষায় উপকারী। এতে ভিটামিন সি’ থাকায় এটি ত্বকে বার্ধক্যের ছাপ পড়তে দেয় না। এছাড়া এটি ত্বকের বিভিন্ন রকমের সমস্যা যেমন ত্বক কুচকে যাওয়া, কালো ছাপ, ব্রণ দূর করে থাকে।

২: বাতাবি লেবুতে পটাশিয়ামের পরিমাণ ভালো থাকায় এটি শরীরের রক্ত চলাচল প্রক্রিয়া সঠিক রেখে উচ্চ রক্তচাপের সমস্যা সমাধান করে থাকে। এটি হৃদপিন্ডের উপর চাপ কমিয়ে স্ট্রোক ও হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি কমাতে উপকারী।

৩: ভিটামিন সি ও অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকায় বাতাবিলেবু বিভিন্ন রোগ প্রতিরোধের ক্ষমতা বৃদ্ধিতে উপকারী এটি শরীরের ফ্রী রেডিক্যাল ধ্বংস করে থাকে। এছাড়া বাতাবিলেবুর খোসা বায়োফ্লেভোনয়েডস সমৃদ্ধ, যা ক্যানসারে বিরুদ্ধে কাজ করে অগ্ন্যাশয় ও ব্রেস্ট ক্যানসার প্রতিরোধ করে। এর মধ্যে থাকা লিমোনয়েড উপকরণ ক্যানসারের জীবাণুকে ধ্বংস করে ও এর আঁশ মলাশয়ের ক্যানসার দূর করে।

৪: বাতাবি লেবুতে থাকা আঁশ পরিপাকতন্ত্রের সমস্যা দূর করে হজম প্রক্রিয়া ভালো রাখে। এর ফলে কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা ও ডায়রিয়ার সমস্যা দূর হয়।

৫: রক্তস্বল্পতা প্রতিরোধের বাতাবি লেবু উপকারী। এটি রক্তে হিমোগ্লোবিনের মাত্রা বাড়াতে সাহায্য করে। এছাড়া রক্তে আয়রনের পরিমাণ বাড়িয়ে অ্যানিমিয়ার সমস্যা দূর করে।

৬: বাতাবি লেবুতে থাকা পটাসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম ও সোডিয়াম হাড়ের সুরক্ষায় উপকারী। এই উপাদানগুলি একত্রে অস্টিওপোরোসিস সহ হাড়ের নানান রোগ নিরাময়ে সাহায্য করে।

★এরকম সমস্ত আপডেট পেতে ওপরের ডান দিকের ফলো অপশনে ক্লিক করুন★

Latest