জীবনযাপন

যেসব মারাত্মক রোগ থেকে সহজেই মুক্তি দেয় বিট লবণ, জেনেনিন বিস্তারিত

খাবারের স্বাদ বাড়াতে লবণ অতুলনীয়। তবে আমরা সবাই রান্নায় সাধারণ লবণই ব্যবহার করে থাকে। যা পরিমিত খাওয়া স্বাস্থ্যকর। তবে খাবারে বিট লবণের ব্যবহার খুব কম সংখ্যক মানুষই করে থাকেন। অনেকেই বিট লবণ খেতে পছন্দ করেন না। জানলে অবাক হবেন যে, বিট লবণ খাওয়ার অনেক উপকারিতা রয়েছে। বিট লবণ খাওয়ার ফলে নিজের অজান্তেই শরীরের অনেক রোগ থেকে মুক্তি মেলে।
আয়ুর্বেদিক বিশেষজ্ঞদের মতে, বিট লবণ অনেক মারাত্মক রোগ থেকে মুক্তি দিতে পারে। অ্যাসিডিটি বা কোষ্ঠকাঠিন্যতা ও বমি বমি ভাবের মতো সমস্যা থেকে সহজেই মুক্তি পাওয়া যায়।

ভারতের আয়ুর্বেদ চিকিৎসক আবরার মুলতানির মতে, বিট লবণ বা কালো লবণ গ্যাসের সমস্যা দূরে অনেক সহায়তা করে। সেই সঙ্গে কোলেস্টেরল, ডায়াবেটিস, অবসাদ এবং পেট সংক্রান্ত বিভিন্ন সমস্যার সমাধান এই লবণ। এ জন্য প্রতিদিন সকালে গরম জলে বিট লবণ মিশিয়ে খাওয়ার ফলে শরীর সুস্থ থাকবে।

বিট লবণের উপকারিতা

>> যারা সুগারের রোগী তাদের সাদা লবণের পরিবর্তে বিট লবণ খাওয়া উচিত। রক্তে শর্করার পরিমাণ নিয়ন্ত্রণে বিশেষ ভূমিকা পালন করে বিট লবণ।

>> অনেকেই আছেন অনাকাঙ্ক্ষিত বেড়ে যাওয়া ওজন কমাতে চান। তাদের জন্য এই লবণ খুব সহায়ক। এই লবণে উপস্থিত খনিজগুলো অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল হিসেবে কাজ করে থাকে। ফলে শরীরে উপস্থিত বিপজ্জনক ব্যাকটেরিয়া দূর হয়। এছাড়াও এ লবণে সোডিয়ামের উপাদান বেশি রয়েছে। তাই শরীর সতেজ ও চাঙা রাখতে বিট লবণ অনেক উপকারী।

>> হজমজনিত সমস্যা এবং শরীরের কোষে পুষ্টি সরবরাহ করে বিট লবণ। এমনকি স্থূলতা নিয়ন্ত্রণেও সহায়তা করে থাকে। পুষ্টি এবং খনিজ সমৃদ্ধ হওয়ায় নিয়মিত খাওয়ার ফলে শরীরের হাড় অনেক মজবুত থাকে।

Related Articles

Back to top button