জীবনযাপন

দাম্পত্য জীবনে সমস্যা থাকলে এই বিষয়ে যার সাথে করতে পারে খোলা আলোচনা, দেখেনিন একনজরে

বন্ধুরা হয়তো দুর্দিনে আপনার পাশে এসে দাঁড়াতে পারে। কিন্তু নিজের জীবনে বন্ধুদেরকে কতটা সংশ্লিষ্ট করা উচিৎ?
সম্পর্ক বিষয়ক বিশেষজ্ঞদের মতে, কারো যখন তার স্ত্রীর সঙ্গে ঝগড়া হবে তখন স্বাভাবিকভাবেই তিনি বন্ধু ও পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করবেন। কিন্তু এভাবে নিজের দাম্পত্য সমস্যা নিয়ে পরিবার বা বন্ধুদের সঙ্গে আলোচনা করলে এতে উপকার না হয়ে বরং ক্ষতিই হয় বেশি।

উদাহরণত, আপনার সেরা বন্ধুটি হয়তো আপনার পক্ষে কথা বলার চেষ্টা করতে পারেন। কিন্তু এতে আপনার স্ত্রী বা স্বামীর সঙ্গে আপনার সম্পর্ক আরো খারাপ হয়ে উঠতে পারে।
সম্পর্ক বিষয়ক পরামর্শক ভিনা চক্রবর্তী বলেন, “ঘনিষ্ঠ কোনো বন্ধুর সঙ্গে নিজের দাম্পত্য সম্পর্কের সমস্যাগুলো নিয়ে আলোচনা করে মনটাকে হালকা করার মধ্যে কোনো সমস্যা নেই। তবে, কারো সঙ্গে খুব বেশি কিছু বলতে যাবেন না। আর নয়তো হিতে বিপরীত হতে পারে। এবং স্ত্রী বা স্বামীর সঙ্গে আপনার আরো বেশি ভুল বুঝাবুঝির সৃষ্টি হতে পারে।”

১. আপনি আপনার স্বামী বা স্ত্রীকে ভুলভাবে উপস্থাপন করতে পারেন
আপনি হয়তো না বুঝেই আপনার স্বামী বা স্ত্রীকে পরিবার ও বন্ধুদের কাছে ভুলভাবে উপস্থাপন করতে পারেন। আপনাদের দুজনের যদি একই বন্ধু থাকে তাহলে তারা হয়তো আপনাদের ব্যাপারে বিভিন্ন অমূলক ধারণা পোষণ শুরু করবে। এটা শুধু আপনার স্বামী বা স্ত্রীর জন্যই নয় বরং আপনার জন্যও সমস্যা তৈরি করবে।

২. আপনার স্বামী বা স্ত্রী আপনার ওপর আস্থা হারাবে
বেডরুমের কথা বাইরে নিয়ে গেলে আরেক উপায়ে আপনার স্বামী বা স্ত্রী আপনার ওপর আস্থা হারাবে। অন্যদের সঙ্গে আপনাদের সম্পর্কের খুটিনাটি বিষয়ে আলোচনা করতে গেলে এতে আপনার স্বামী বা স্ত্রী আপনার ওপর দীর্ঘমেয়াদে আস্থা হারাবে।

৩. বন্ধুদের আপনি শুধু প্রাথমিক কিছু তথ্য জানাতে পারেন
আপনার যদি আপনার বন্ধুদের ওপর পূর্ণ আস্থা থাকে এবং তাদের পরামর্শ দরকার মনে করেন তাহলে তাদের সঙ্গে দাম্পত্য সম্পর্কের সমস্যা নিয়ে আলোচনা করতে পারেন। তবে একান্তই ব্যক্তিগত তথ্যগুলো গোপন রাখুন এবং নিজেদের মধ্যে সীমাবদ্ধ রাখুন।

৪. অন্যদেরকে খুব বেশি কিছু জানালে তাতে আপনার স্বামী বা স্ত্রীর সঙ্গে আপনার বড় ধরনের কোনো ভুল বুঝাবুঝি হতে পারে
আপনি কখনোই নিশ্চিত করে জানতে পারবেন না আপনার বন্ধুরা সত্যিই আপনার ভালো চান কিনা। দাম্পত্য সম্পর্ক বিষয়ক পরামর্শক ড. সঞ্জয় মুখার্জি বলেন, “আপনার বন্ধুরা আপানাকে কী পরামর্শ দেয় তা হয়তো সবসময়ই আন্তরিকতাপূর্ণ নাও হতে পারে। তারা হয়তো আপনার সমস্যা ঠিক মতো নাও বুঝতে পারে। ফলে এমনে কোনো ভুল পরামর্শ দিয়ে বসতে পারে যা আপনাদের সম্পর্ককে আরো খারাপ দিকে নিয়ে যাবে।

৫. তাহলে আপনি আপনার দাম্পত্য সম্পর্কের সমস্যাগুলো কার সঙ্গে আলোচনা করবেন?
আপনার দাম্পত্য সম্পর্কে সত্যিই যদি মারাত্মক কোনো সমস্যা থাকে তাহলে প্রথমে এবং সর্বাগ্রে সেটি নিয়ে আপনারা নিজেদের মধ্যে আলোচনা করুন।

অথবা দরকার হলে পেশাদার কোনো বিশেষজ্ঞের পরামর্শ গ্রহণ করুন। দাম্পত্য সম্পর্ক বিষয়ক বিশেষজ্ঞ এবং পরামর্শদাতা দুদিক থেকে সমস্যাটি পর্যবেক্ষণ করতে সক্ষম হবেন। তিনি আপনাদের দুজনকেই নির্মোহভাবে বুঝার চেষ্টা করবেন এবং একতরফা কোনো রায় দেবেন না।
বাবা-মা, শ্বশুর বাড়ির লোকজন বা ভাইবোনদের সঙ্গে সমস্যাগুলো নিয়ে আলোচনা করুন। পরিবারের লোকেরাই খুব সহজে আপনার স্বামী বা স্ত্রীর সঙ্গে সমস্যাটি নিয়ে আলোচনা করে এর একটি সমাধান বের করতে পারবেন।

Related Articles

Back to top button