যেসব কারণে অবশ্যই সহকর্মীর সাথে কখনোই প্রেম করা উচিত নয়, জেনেনিন

চাকরিজীবিদের সাধারণত অফিসেই বেশি সময় দিতে হয়। সবসময় অফিস সহকর্মীদেরই মুখোমুখি থাকতে হয়। এতে করে দেখা যায় কোনো এক সহকর্মীর প্রতি দুর্বলতা সৃষ্টি হয়। রূপ নেয় প্রেমের সম্পর্ক। এমনকি বিয়ে পর্যন্ত গড়ায়। কিন্তু এটি মোটেও ঠিক নয়। কেননা অফিস সহকর্মীর সঙ্গে প্রেম কিংবা জীবন সঙ্গী করতে চাইলে অনেক সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়। ভবিষৎ জীবনকে বিষময় করে তুলতে পারে। তাই অফিস সহকর্মীর সঙ্গে প্রেম না করাই আপনার জন্য মঙ্গলজনক হবে।

অফিস সহকর্মীর সঙ্গে প্রেমে যেসব সমস্যা দেখা দিতে পারে-

১। অফিসে সহকর্মীর সঙ্গে প্রেম হওয়ার বড় সমস্যা হলো কোনো স্বাধীন সত্ত্বা না থাকা। অফিসের আট ঘণ্টা যার সঙ্গে কাটাচ্ছেন, তার সঙ্গে দিনের বাকিটা সময়ও যদি কাটাতে হয়, তাহলে নিজের জন্য একান্ত মুহূর্ত বের করাটা হয়ে যায় খুবই কষ্টকর। কাজে বা অবসরে ওই একজনের সঙ্গেই যদি কাটাতে হয়, অনেক সময় সেটা হয়ে ওঠে বিরক্তিকরও।

২। সহকর্মীর সঙ্গে প্রেম করলে সমস্যা তৈরি হয় অফিসের অন্য সহকর্মীদের জন্য। অনেকেই বিষয়টিকে ভালো চোখে দেখে না, বরং প্রেমিক জুটির প্রতি পোষণ করেন বিদ্বেষমূলক মনোভাব। এই ধরণের সমস্যা কাজের পরিবেশকেও বিষিয়ে তোলে। এই ধরণের পরিস্থিতি এড়াতে অফিসে সহকর্মীদের মধ্যে প্রেম বা বিয়ের ব্যাপারটা বাদ দেওয়া প্রয়োজন।

৩। অফিসে সহকর্মীদের মধ্যে প্রেম হলে বেশীরভাগ ক্ষেত্রেই ইগোর সমস্যা হয়। সমান যোগ্যতা ও অবস্থানের একজনের বেতন অন্যজনের চেয়ে কম হলে সে ঈর্ষান্বিত হবেই। আর সেই ঈর্ষা নিজেকেই ক্ষতিগ্রস্ত করে।

৪। সহকর্মীর সঙ্গে প্রেম হলে ব্যক্তিজীবন হয়ে ওঠে বিরক্তিকর। সারাদিন চাকরির খাটুনির পর দিন শেষে যখন প্রেমিকের কাছ থেকেও শুনতে হয় সেই একই অফিসের গল্প, তখন খুব বিরক্ত লাগে। বিবাহিতদের ক্ষেত্রে এই সমস্যা অনেক বড় সমস্যা। স্বামী বা স্ত্রী সহকর্মী হলে অনেক সময় অফিসের কাজ বাড়িতেই নিয়ে আসতে পারেন, যা সংসারের অশান্তির জন্য কাঠিস্বরূপ।

৫। অফিসে সহকর্মীর সঙ্গে প্রেম হলে কাজের ঘাটতি দেখাবে। কারণ অফিসে দু’জনেই সামনাসামনি থাকার কারণে শুধু তার প্রতি মনোযোগী হচ্ছে যার ফলে কাজের বিঘ্ন ঘটছে। তাছাড়া সঙ্গী যখন সামনে থাকবে তখন কোন কাজেই মনোযোগ থাকবে না। আর অফিসের কাজ ঠিকঠাক মত না হলে চাকরি চলে যাওয়ার মতো অবস্থা সৃষ্টি হতে পারে। তাই অফিসের সহকর্মীর সঙ্গে প্রেম না করাই ভালো।

Related Posts

© 2022 Totka24x7 - Theme by WPEnjoy · Powered by WordPress