জীবনযাপন

নিত্যদিনের কোন খাবারে কী কী ভিটামিন পাওয়া যায়, তাহলে জেনে নেয়া যাক

খাবারের মূল ৬টি উপাদান এর মধ্যে ভিটামিন ক্ষুদ্র উপাদানের মধ্যে পড়লেও এর উল্লেখযোগ্য প্রভাব রয়েছে আমাদের শরীরে। ভিটামিন এ, বি কম্প্লেক্স, সি, ডি,ই,কে- এর মধ্যে কিছু ভিটামিন ফ্যাট-এ দ্রবনীয়, কিছু জলে দ্রবনীয়। এগুলো আমাদের শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে। জেনে নেয়া যাক, আমাদের নিত্যদিনের খাদ্য তালিকায় কোন কোন ভিটামিনসমৃদ্ধ খাবার আমরা গ্রহণ করছি।

ভিটামিন এ সমৃদ্ধ খাবারঃ
ছোট মাছ(মলা,মলান্দি,কাজলি), দুধ, মাখন, কড লিভার ওয়েল, ঘি, টার্কির কলিজা, গরুর কলিজা, মাংস, ডিম, গাজর, পালংশাক, বাধাকপি, ব্রোকলি, সরিষা শাক, লাল মরিচ, টমেটো, কুমড়া, লেটুস, আম, জাম্বুরা, পাকা পেপে, ইত্যাদি

একজন পূর্ণবয়স্ক মহিলার শরীরে ভিটামিন ‘এ’ দিনে কম করে ৭০০ মাইক্রোগ্রাম থাকা উচিত। পূর্ণবয়স্ক পুরুষদের শরীরে দিনে কম করে ৯০০ মাইক্রোগ্রাম ভিটামিন ‘এ’ থাকা দরকার। মহিলাদের খাবারে ঊর্ধ্বসীমা দৈনিক সর্বাধিক ৩০০০ মাইক্রোগ্রাম ও পুরুষদেরও ৩০০০ মাইক্রোগ্রাম ভিটামিন ‘এ’ থাকা

ভিটামিন বি জাতীয় খাবারঃ
বিভিন্ন ধরনের ভিটামিন বি রয়েছে যেগুলোকে একসঙ্গে ভিটামিন বি কমপ্লেক্স বলে। ভিটামিন বি১(থায়ামিন), ভিটামিন বি২(রিবোফ্লাভিন), ভিটামিন বি৩(নিয়াসিন), ভিটামিন বি৫(প্যান্টোথেনিক এসিড), ভিটামিন বি৬(পাইরিডক্সাইন), ভিটামিন বি৭ (বায়োটিন), ভিটামিন বি ৯ (ফলিক এসিড), ভিটামিন বি ১২(কোবালামিন)।

ওটস,গরুর কলিজা, টার্কির কলিজা, দেশি মুরগী কলিজা, সামুদ্রিক মাছ (সার্ডিনস, ম্যাকেরেল, শেল্ফিস, স্যামন, টুনা), ডিম, দুধ ও দুধ জাতীয় খাবার, শিম ও মটরশুটি, মাশরুম, বাদাম ও বিভিন্ন প্রকারের বীজ, আস্ত শস্য, সবুজ শাক সবজি (পালং শাক), কলা, আভোক্যাডো, গুড়, মধু ইত্যাদি

ভিটামিন সি জাতীয় খাবারঃ
লেবু, আমলকি, পেয়ারা, আনারস, জাম্বুরা, চালতা, জলপাই, কদবেল, তেতুল, বড়ই, কামরাঙা, সবুজ আপেল, কমলা, আঙুর, জাম, আমড়া, মাল্টা, কাঁচামরিচ, পুদিনা পাতা, পার্সেলে পাতা ইত্যাদি।

ভিটামিন ডি জাতীয় খাবারঃ
তৈলাক্ত বা চর্বি যুক্ত বিভিন্ন মাছ। পুনা মাছ, শ্যামন মাছ, পাঙ্গাস মাছ প্রভৃতি। মাশরুম, দুধ, কর্ডলিভার ওয়েল, চিজ, কমলা লেবু, ওটস ও বাদামীচাল, ডিমের কুসুম, গরুর কলিজা, দই, গম,রাগী, বার্লী,পনির ইত্যাদি।

ভিটামিন ই জাতীয় খাবারঃ
চিনা বাদাম, আখরোট, বাদাম, উদ্ভিজ তেল, ডিমের কুসুম, গম, সয়াবিন, সূর্যমুখী, সবুজ শাকসবজি (পালংশাক, বাধাকপি, ব্রোকলি, কাঁচা শালগম, বিভিন্ন ধরনের মরিচ, মটরশুটি, লেবু, আভোকাডো, ডিম, স্যালমন মাছ, চর্বি বিহীন মাছ ইত্যাদি।

ভিটামিন কে জাতীয় খাবারঃ
সবুজ রঙের শাকসবজি, লেটুস পাতা, ফুলকপি, বাধাকপি, ডিমের কুসুম, ছাগলের যকৃত, সয়াবিন তেল, শালগম, বিট, মূলা, লাল মরিচ, পালংশাক, বেদানার রস,গাজরের রস, রসুনের পাতা ইত্যাদি।

Related Articles

Back to top button