জীবনযাপন

আপনার দাম্পত্য জীবন হবে অনেক সুখের যদি মেনে চলেন এই ১২টি সহজ কৌশল

বিবাহের পর সুখী দাম্পত্য জীবন কে না চায়। তবে চাইলে তো আর জীবনে সুখ পাওয়া যায় না। কিছু বিষয় বা শর্ত মেনে চললে জীবন হয়ে ওঠে আনন্দময়। এক সংসারে থাকতে গেলে ছোট খাট সমস্যা হবেই। তবে এসব সমস্যাকে ছাপিয়ে চেষ্টা করতে হবে সুখি জীবনযাপন করার। নিচের শর্তগুলো মেনে চললে দাম্পত্য জীবন হয়ে উঠবে সুখকর।

একসাথে ব্যায়াম করা:

সুস্থ শরীরের জন্য নারী,পুরুষ প্রত্যেকের ওয়ার্ক আউট করা উচিত। কিন্তু স্বামী-স্ত্রীর ক্ষেত্রে দুজন একসাথে ওয়ার্কআউট করলে দুজনের মধ্যে বন্ধন দৃঢ় হয়।

সঙ্গীর বন্ধুর সাথে ভালো সম্পর্ক রাখা:

চেষ্টা করুন আপনার সঙ্গীর বন্ধু-বান্ধবীদের ভালো সম্পর্ক রাখতে । এতে করে আপনার সামাজিক সার্কেল বড় হবে। আর কোন সমস্যা হলেও ওই বন্ধুদের কাছ থেকে আপনি সাহায্য নিতে পারবেন।

স্বাধীনতা দেওয়া:

মাঝেমধ্যে সঙ্গীর বন্ধুদের সাথে বের হবেন ঠিক আছে কিন্তু আপনার সঙ্গীকেও তার বন্ধুদের সাথে নিজের মতো করে সময় কাটাতে দিন।

পরিবারকে প্রাধান্য দেওয়া:

সঙ্গীর সাথে সাথে তার বাবা-মা, ভাই-বোন অর্থাৎ পরিবারকে গুরুত্ব দিন। তাদেরকে উপযুক্ত সম্মান দিন এবং ভালো সম্পর্ক বজায় রাখুন।

পুরানো কথা না তোলা:

পুরোনো কোন কথা যা তিক্ততা সৃষ্টি করে এমন কথা বারবার তুলে আনবেন না। এতে করে সমস্যা সমাধান হওয়ার পরিবর্তে নতুন করে সমস্যা সৃষ্টি হবে।

দোষ না চাপানো:

অনেকে আছে কোন কারণ ছাড়াই একজন আরেকজনকে দোষ চাপায়। এতে করে পরিস্থিতি আরো জটিল হয়। দোষ না চাপিয়ে দুজন বসে সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করুন।

একসাথে রান্না করা:

কোন উৎসবে বা অনুষ্ঠান উপলক্ষ্যে চেষ্টা করুন একসাথে রান্না করার। এরকম ছোট ছোট সুখকর বিষয়গুলো দুজনকে কাছে নিয়ে আসে।

সবকিছুতে মন্তব্য না করা:

মানুষ নিজের অজান্তে অনেক সময় অনেক কিছু বলে থাকে। এজন্য সব কথাতে মন্তব্য করা থেকে নিজেকে বিরত রাখুন।

নিজের মতো করে সময় কাটানো:

প্রত্যেক মানুষ কিছু সময় নিজের মতো করে কাটাতে চায়। এজন্য সবাইকে তাদের নিজস্ব কিছু সময় দেওয়া উচিত।

আর্থিক দায়িত্ব:

চিকিৎসা, ঘোরাঘুরি বা অন্যান্য কাজের জন্য দুজন মিলে সেভিংস করা শুরু করুন। একজন আরেকজনের প্রতি আস্থা ও বিশ্বাস রাখুন।

ভাগাভাগি করে কাজ করা:

একজনই কেন বাড়ির সব কাজ করবে?চেষ্টা করুন বাড়ির সব কাজ দুজন ভাগাভাগি করে করতে। এতে করে কারো একার ওপর অতিরিক্ত চাপ পড়বে না।

Related Articles

Back to top button