জীবনযাপন

কোনো ওষুধ নয় বরং ঘরোয়া এই উপায়েই দূর হবে আপনার দীর্ঘ দিনের পাইলসের সমস্যা! জেনেনিন বিস্তারিত

পাইলস খুব পরিচিত একটি সমস্যা। বিশেষ করে ৪৫ থেকে ৬৫ বয়সী মানুষেরা এই রোগে বেশি ভুগে থাকেন। এছাড়া অন্যান্য বয়সীদের ক্ষেত্রেও এই রোগে আক্রান্তের সংখ্যা কম নয়। পাইলস হওয়ার জন্য নানা কারণ দায়ী। এর মধ্যে পারিবারিক ইতিহাস, কোষ্ঠকাঠিন্য, কম ফাইবারযুক্ত খাবার, স্থূলতা, শারীরিক কার্যকলাপ, গর্ভাবস্থায়, এবং দীর্ঘক্ষণ দাঁড়িয়ে অথবা বসে থাকা ইত্যাদি উল্লেখযোগ্য। ওষুধে না সারলে অপারেশনের প্রয়োজন পড়ে অনেকের ক্ষেত্রে। তবে কিছু ঘরোয়া উপায় মেনে চললে এর থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব।

বরফ ভাবছেন, বরফ কীভাবে পাইলস সারাবে? এটি আসলে পাইলস দূর করার অন্যতম ঘরোয়া উপায়। বরফ রক্ত চলাচল সচল রাখে এবং ব্যথা দূর করে। একটি পরিষ্কার কাপড়ে কয়েক টুকরো বরফ পেঁচিয়ে ব্যথার স্থানে মিনিট দশেক রাখুন। দিনে কয়েকবার ব্যবহার করুন। পাইলস থেকে মুক্তি মিলবে।

অ্যাপেল সাইডার ভিনেগার একটি তুলোর বল নিন। এবার তাতে অ্যাপেল সাইডার ভিনেগার লাগিয়ে ব্যথার স্থানে ব্যবহার করুন। প্রথমে কিছুটা জ্বালাপোড়া অনুভব করলেও পরক্ষণেই তা কমে যাবে। এটিও দিনে একাধিকবার করুন।

অ্যালোভেরা আক্রান্ত স্থানে অ্যালোভেরা জেল ব্যবহার করলে আরাম পাবেন। এটি জ্বালাপোড়া কমিয়ে দেবে অনেকটাই। অ্যালোভেরা পাতার ভেতর থেকে জেল বের করে ফ্রিজে রেখে ঠান্ডা করুন। এরপর সেই ঠান্ডা অ্যালোভেরা আক্রান্ত স্থানে ব্যবহার করুন। পাইলস থেকে মুক্তি পেতে এটি নিয়মিত ব্যবহার করতে পারেন।

অলিভ অয়েল অলিভ অয়েল আছে বাড়িতে? ফুডগ্রেড অলিভ অয়েল দিনে এক চা চামচ করে খান। এটি শরীরের প্রদাহ হ্রাস করে এবং মোনোস্যাচুরেটেড চর্বি উন্নত করে থাকে। পাশাপাশি ব্যথা কমাতে সাহায্য করবে।

আদা ও লেবুর রস শরীরে জলশূন্যতা পাইলসের ক্ষেত্রে অন্যতম কারণ হতে পারে। তাই জলশূন্যতা দূর করতে আদাকুচি, লেবু এবং মধু মিশ্রিত জুস দিনে দুইবার পান করুন। এটি শরীরে জলের চাহিদা পূরণ করার পাশাপাশি পাইলস নিরাময়ে সাহায্য করে। দিনে অন্তত আট-দশ গ্লাস জল পান করুন।

Related Articles

Back to top button