মৃত্যুর আগে শেষ ইচ্ছা পূরণ করলো প্রেমিকের সাথে, জানেন কি করেছে তারা!

0
8

মরণশয্যায় এক যুবক৷ শরীরে বাসা বেঁধেছে মারণ রোগ ক্যান্সার৷ শুকনো চোখের কোণে ঝলমল করছে একটুকরো স্বপ্ন৷ কিন্তু হাতে যে আর বেশি সময় নেই! সঙ্গিনীকে দিয়ে যেতে হবে স্ত্রীর সম্মান৷ স্বীকৃতি দিতে হবে তাদের একমাত্র ভালোবাসার চিহ্ন কন্যাটিকেও৷

কিন্তু গত মে মাসেই লিভার ক্যান্সার ধরা পড়ে রওডেনের৷ এবং চিকিৎসক জানিয়েছে দেন একেবারে লাস্ট স্টেজ৷ তাই আর কিছু করা যাবে না৷ হাসপাতালে ভর্তি করা হয় রওডেনকে৷ চলছিল কেমো থেরাপি৷

গত ১১ জুন রওডেন টের পান দেহে প্রাণ হয়তো আর বেশিক্ষণ নেই৷ শেষ ইচ্ছেপূরণ করে যেতে হবে৷ ১২ ঘণ্টার মধ্যে আয়োজন করা হয় লেইজল এবং রওডেনের বিবাহবাসরের৷ সঙ্গীনীকে বধূর স্বীকৃতি দিয়ে আর তাদের একমাত্র সন্তানের মাথায় হাত দিয়েই চোখ বুজলেন রওডেন৷ তাদের ভালবাসার স্বাক্ষী থাকল গোটা বিশ্ব৷