পাট শাকের উপকারিতা ও অপকারিতা সম্পর্কে জেনেনিন

সবুজ রঙের যেকোনো শাক বা সবজি আমাদের জন্য যে ভীষণ উপকারী, একথা তো সবারই জানা। সবুজ শাকের প্রসঙ্গ এলে সবার আগে মনে পড়ে পালংশাক কিংবা মেথি শাকের কথা। এদিকে পুষ্টিগুণে ভরপুর পাট শাকের কথা থেকে যায় আড়ালেই।

আমাদের দেশে পর্যাপ্ত পাট চাষ হয়। কচি পাটের পাতা শাক হিসেবে খাওয়া হয়। রান্না করে খাওয়ার পাশাপাশি স্যুপ, স্ট্যু ও সস ঘন করতেও এই শাক ব্যবহার করা হয়ে থাকে। পাট শাক ভাজি খেতেও কিন্তু ভীষণ সুস্বাদু। এক থালা গরম ভাতের সঙ্গে একটুখানি ঘি, একটি পোড়া মরিচ আর পাট শাক ভাজি খেয়েই দেখুন না!

শুধু স্বাদ নয়, জানতে হবে পাট শাকের গুণের কথাও। চলুন জেনে নেওয়া যাক পাট শাকের উপকারিতা সম্পর্কে। তবে কারও কারও ক্ষেত্রে পাট শাক খেলে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দিতে পারে। জেনে নিন বিস্তারিত-

শরীরে প্রদাহ থেকে রক্ষা করে

পাট শাকে থাকে প্রচুর ওমেগা-৩ ফ্যাট। যে কারণে পাট শাক খেলে তা শরীরে সৃষ্ট প্রদাহ কমাতে সাহায্য করে। এছাড়াও এই শাকে আছে লাইকোপিন। এটি একটি অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। এটি আমাদের শরীরের কোষগুলোকে রক্ষা করে অক্সিডেটিভ ক্ষতি থেকে।

সুগঠিত করে হাড়

বর্তমানে হাড়ের সমস্যা যেন ঘরে ঘরে। এর বড় কারণ হলো ক্যালসিয়াম এবং ম্যাগনেসিয়ামের অভাব। তাই এই দুই উপাদান আছে এমন খাবার রাখতে হবে খাবারের তালিকায়। পাট শাকে কিন্তু ক্যালসিয়াম এবং ম্যাগনেসিয়াম পাওয়া যাবে পর্যাপ্ত। নিয়মিত পাট শাক খেলে হাড় ভালো থাকে। কারণ ক্যালসিয়াম এবং ম্যাগনেসিয়াম হাড় সুগঠিত করতে কার্যকরী।

বাড়ায় রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা

পাট শাকে থাকে প্রচুর ভিটামিন সি। এই ভিটামিন একটি অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট যা স্ট্রেস, দূষণ এবং জীবনযাত্রার বদ অভ্যাসের কারণে কোষের যে অক্সিডেটিভ ক্ষতি হয় তা নিয়ন্ত্রণ করতে পারে। বিশেষজ্ঞদের মতে, পাট শাক খেলে বাড়ে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা। এটি সংক্রমণের বিরুদ্ধে লড়াই করার ক্ষমতা বাড়াতে কাজ করে।

পাট শাকের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া

আপনার যদি আগে থেকে পাট শাক খাওয়ার অভ্যাস না থাকে তবে সম্ভব হলে অ্যালার্জি টেস্ট করিয়ে নেবেন। কারণ অনেকের অনেক শাক-সবজিতে অ্যালার্জি থাকতে পারে। পাট শাকে অ্যালার্জি থাকে এটি খাওয়ার পর চুলকানি বা র‍্যাশ হতে পারে। এরকমটা হলে এই শাক খাওয়া বন্ধ করতে হবে।

পাট শাক কীভাবে খাবেন

পাট শাক ভাজি তো জনপ্রিয়, সেইসঙ্গে স্যুপ ও স্ট্যুতে মিশিয়ে খাওয়াও খাওয়া যেতে পারে। নাইজিরিয়াতে পাট পাতা ও শুকনো মাছ দিয়ে ইয়েডু নামক একটি স্যুপ খাওয়া হয়। মিশরে পাট পাতা কুচিয়ে তার মধ্যে লেবুর রস ও অলিভ অয়েল দিয়ে খাওয়ার প্রচলন আছে মিশরে। এর নাম হলো মুলুখিয়া। পাট শাকের চা খাওয়া হয় জাপানে। আমাদের দেশে পাট শাকের বড়া বা পাকোড়া খাওয়ারও প্রচলন রয়েছে।

Rs

Related Posts

© 2022 Totka24x7 - Theme by WPEnjoy · Powered by WordPress