ভয়ঙ্কর বিপদ! ৫০০০ বছর আগে বলে যাওয়া শ্রীকৃষ্ণের প্রত্যেকটি কথা অক্ষরে অক্ষরে মিলে যাচ্ছে! শেষেরটি সবথেকে ভয়ানক

More articles

টোটকা24×7 নিউজ ডেস্ক: শ্রীমদ ভাগবত পুরাণ হিন্দু ধর্মের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ধর্মগ্রন্থ গুলোর মধ্যে একটি। এই পুরাণের রচনা আজ থেকে ৫০০০ বছর আগে হয়েছিল। আপনি এটা জেনে আশ্চর্য হবেন যে, ভবিষ্যতে কি কি ঘটবে এটা ভাগবত পুরাণে আগে থেকেই উল্লেখ করা হয়েছিল। আজ এই প্রতিবেদনে জেনে নিন, শ্রীমদ ভাগবত পুরাণে বলা তেমনই কিছু কলি যুগের কথা যেগুলো, এখন সত্যিই ঘটছে।

১। পুরুষ হয়ে যাবে স্ত্রীদের অধীনেঃ শ্রীমদ ভাগবত পুরাণে এক জায়গায় শ্রীকৃষ্ণ নারদকে বলছেন যে, কলি যুগে এমন একটা সময় আসবে যখন সমস্ত পুরুষই হয়ে যাবে স্ত্রীদের অধীনে। প্রতিটা ঘরে তখন রাজ করবে স্ত্রীরা। পুরুষরা তাদের কাছে ছোট হয়ে থাকবে। স্ত্রীদের কাছে পুরুষরা চাকরের সমান হয়ে যাবে।

২। গঙ্গা পুনরায় বৈকুন্ঠ ধামে ফিরে যাবেঃ শ্রীমদ ভাগবত পুরাণের এক জায়গায় বলা আছে, ৫০০০ বছর পরে গঙ্গা শুকিয়ে যাবে, এবং পুনরায় বৈকুন্ঠ ধামে ফিরে যাবে। যখন কলিযুগের ১০০০০ বছর পার হবে তখন সব দেব দেবী স্বর্গে ফিরে যাবে। কলিযুগে মানুষ সমস্ত ধার্মিক কাজ করা বন্ধ করে দেবে। কারণ ততদিনে হিংসা আর পাপ কলিযুগের মানুষের উপর নিজের কতৃত্ব জমিয়ে ফেলবে।

৩। অন্ন আর ফল শেষ হয়ে যাবেঃ শ্রীমদ ভাগবত পুরাণে একটা জায়গায় এটাও বলা আছে যে, কলিযুগের একটা সময়ে শষ্য, এবং ফলমূল উৎপাদন হওয়া পুরোপুরি বন্ধ হয়ে যাবে। এবং আস্তে আস্তে এই সমস্ত জিনিস বিলুপ্ত হয়ে যাবে।

৪। চোর আর অপরাধী দের সংখ্যা বেড়ে যাবেঃ এই যুগে চোর আর অপরাধী দের সংখ্যা এতটাই বেড়ে যাবে যে, ঠিক ভাবে জীবন যাপন করাই সমস্যা হয়ে যাবে সাধারণ মানুষের পক্ষে। সবাই একে অপরের প্রতি হিংসাত্মক হয়ে পড়বে, এবং সবাই পাপ কাজে লিপ্ত হয়ে যাবে।

৫। কলিযুগের শেষে একটি ভয়ঙ্কর প্রলয় আসবেঃ শ্রীমদ ভাগবত পুরাণে লেখা আছে যে, কলিযুগের শেষে একটি এমন প্রলয় আসবে যাতে পৃথিবী ধ্বংস হয়ে যাবে। পৃথিবীতে মোটা ধারার বিশাল বৃষ্টি নামবে, যাতে চারিদিকে শুধু জল আর জলই থাকবে, যাতে করে সমস্ত প্রাণীই মারা পড়বে। এমন সমস্তু আপডেট পেতে আমাদের ফলো করুন টোটকা ২৪×৭।

Latest