বিশ্বের ইতিহাসে সবচেয়ে কমবয়সে মৃত্যুদন্ড! দুঃসাহসিকতার জন্য মাত্র ১০ বছর বয়সেই এই ছেলেটিকে ফাঁসির সাজা দেওয়া হলো! সমোলোচনার ঝড় গোটাবিশ্ব জুড়ে

More articles

টোটকা24×7 নিউজ ডেস্ক: সত্যিই এমন ঘটনা খুব কমেই শোনা যায়। আরব বসন্তের এক র‌্যালির নেতৃত্ব দেওয়ায় রাষ্ট্রদ্রোহের অপরাধে মৃতদণ্ড হতে চলেছে মুর্তাজা কুরেইরিস নামের তরুণের। বর্তমানে সৌদি কারাগারে রাজনৈতিক বন্দী হিসেবে তাঁকে রাখা হয়েছে। তার ফাঁসি কার্যকর হলে সৌদি আরবের ইতিহাসে সবচেয়ে কম বয়সী কারও মৃতুদণ্ড দেওয়া হবে। র‌্যালিতে অংশ নেওয়ার সময় তার বয়স ছিল মাত্র ১০ বছর। আর সে সময় থেকেই তাকে খোঽজা শুরু হয়‌ সে সময় সৌদি সরকার অল্প বয়সী বালকদের জড়ো হওয়ার এ বিষয়টি ‘পর্যবেক্ষণ’ করে। ওই বিক্ষোভে অংশ নেওয়ার কারণে তিন বছর পর মুর্তাজাকে গ্রেপ্তার করে সৌদি পুলিশ। তখন মুর্তাজার বয়স ছিল ১৩। ৫ বছর ধরে কারাগারে বন্দী রাখা হয়েছে তাকে। আর এরপরেই তাকে ফাঁসি দেওয়া হবে। যা সমালোচনার ঝড় উঠেছে গোটাবিশ্ব জুড়ে।

জানা গিয়েছে, সৌদি রাজতন্ত্রের নিপীড়ন-নির্যাতনের বিরুদ্ধে এবং গণতন্ত্রের দাবিতে ওই সময় দেশজুড়ে বিক্ষোভের সূচনা হয়। এরই অংশ হিসেবে মুর্তাজা বন্ধুদের নিয়ে সাইকেল নিয়ে রাজপথে নামে। ৩০ জন বন্ধুর দলটির নেতৃত্ব দিচ্ছিল মুর্তাজা কুরেইরিস। সে চিৎকার করে বলছে, ‘সৌদিতে সবাই মানবাধিকার পরিস্থিতি সমান দেখতে চায়।’ কেউ রাজপরিবারের অধীনে থাকতে চাই না। এরপরেই সে এক দুঃসাহসিকতার পরিচয় সকলের সামনে তুলে ধরেছিলো। এরকম আরো অজানা পোস্ট জানতে চাইলে শেয়ার করুন সকলের সঙ্গে ও ফলো করুন টোটকা ২৪×৭।

Latest