শাহজাহান-মুমতাজ নয়, লায়লা- মাজনু নয়, স্বর্ণাক্ষরে এদের ভালোবাসার গল্প লেখা থাকবে ইতিহাসে!

More articles

টোটকা24×7 নিউজ ডেস্ক: যেকোনো রকমের বাধাকে টপকে এগিয়ে যাওয়ার ক্ষমতা রাখে এই ভালোবাসা। তৈরি করে নতুন পথ। সমস্ত বাঁধাকে টপকে ভালোবাসার জয় হয়। শাহজাহান-মুমতাজ নয়, লায়লা-মজনু নয় এই ভালোবাসার কাহিনী অনন্ত ও তার প্রেমিকার।

সম্প্রতি,প্রেমিকার বাড়ির সামনে অনড় ভাবে বসে থাকে অনন্ত। টানা একদিন না খেয়ে থাকায় অসুস্থ হয়ে পড়ে সে। তাতেও তার ধারণা মেটেনি। অসুস্থ হয়ে পড়ায় চিকিৎসার প্রয়োজনও হয় তার। দুজনের বাড়িই আলিপুরদুয়ারে। সূত্রের খবর, প্রেমিকার সঙ্গে আলিপুরদুয়ারের এক যুবকের বিয়ে ঠিক হয়। জানতে পেরে রবিবার প্রেমিকার বাড়ির সামনে অবস্থান নেন স্থানীয় যুবক অনন্ত বর্মণ। তার দাবি, মেয়েটির সঙ্গে তার আট বছর ধরে সম্পর্ক। সম্পর্ক ভেঙে হঠাৎ কাউকে বিয়ে করে চলে যাওয়াটা ঠিক নয়। তার দাবি, ‘আমার আট বছর ফিরিয়ে দাও।’ সে জানায়, যুবতীর বাড়ির লোকেরা সম্পর্ক মানতে নারাজ। মেয়ের অন্যত্র বিয়ে দিতে উদ্যোগী তারা। এরপরেই এই সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হয় প্রেমিক করে অনন্ত। পুলিশ আসে অনন্তকে থামাতে, কিন্তু তাতেও কোনো লাভ হয়নি।

শেষ পর্যন্ত সবকিছু দেখে এলাকার মানুষ এগিয়ে আসেন। তারা প্রেমিকযুগলকে মিলিয়ে দিতে উদ্যোগী হন। রাতে অনন্তের বাড়িতে মেয়েটিকে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে সিঁদুর পরিয়ে তারা যান স্থানীয় কালী মন্দিরে। শাস্ত্র মেনে মন্দিরেই মালাবদল হয়। এ যেন এক রুপ কথার গল্প। যা ইতিহাসে লিখে রাখার মতো।

Latest