জীবনযাপন

সাবধান! করোনা টেস্টে নেগেটিভ? তবুও যেসব বিষয়ে সতর্ক থাকবেন, জেনেনিন

করোনার তৃতীয় ঢেউয়ে বিশ্বের সব মানুষ আতঙ্কিত। স্বাস্থ্য পরীক্ষায় করোনাভাইরাস শনাক্ত না হলেও শরীরে কিছু উপসর্গ দেখা দিলে সচেতন থাকা জরুরি। খাবারে অরুচি বা স্বাদহীনতা ও গন্ধহীনতা, জ্বর, সর্দি-কাশি, অবসাদগ্রস্ততাসহ আরও বিভিন্ন উপসর্গ দেখা দিলে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করানো জরুরি। প্রাথমিক স্বাস্থ্য পরীক্ষায় করোনাভাইরাস শনাক্ত না হলেও নিশ্চিন্তে বসে থাকার অবকাশ নেই।

ভারতের একাধিক সংবাদমাধ্যম বলছে, চলমান তৃতীয় ঢেউয়ে স্বাস্থ্য পরীক্ষায় প্রাথমিকভাবে করোনাভাইরাস শনাক্ত না হলেও পরের স্বাস্থ্য পরীক্ষাগুলোতে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন অনেক রোগীই। সে কারণে করোনার একাধিক উপসর্গ দেখা দিলে রোগীকে অবশ্যই সতর্ক থাকতে হবে। মাস্ক পরে থাকা, নিরাপদ দূরত্ব মেনে চলা, সাবান ও স্যানিটাইজার দিয়ে হাত পরিষ্কার করাসহ অন্যান্য স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। চিকিৎসকের পরামর্শমতো ওষুধ সেবন করতে হবে।

জ্বর, সর্দি-কাশিসহ করোনার একাধিক উপসর্গ যেকোনো বয়সের মানুষের শরীরে দেখা দিতে পারে। স্বাস্থ্য পরীক্ষায় করোনাভাইরাস শনাক্ত না হলেও সবসময় সতর্ক থাকতে হবে। কারণ তৃতীয় ঢেউয়ে স্বাস্থ্য পরীক্ষার মাধ্যমে ভাইরাসটি নতুন করে কীভাবে রূপ পরিবর্তন করছে সেটি চিহ্নিত করা সম্ভব হচ্ছে না। টাইমস অব ইন্ডিয়ার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এমনটি হওয়ার কারণ রোগীর শরীরে রোগ প্রতিরোধের ক্ষমতা কম থাকা। করোনার যেসব উপসর্গ দেখা দিলে স্বাস্থ্য পরীক্ষায় নেগেটিভ এলেও সতর্ক থাকা উচিত সেগুলো সম্পর্কে আসুন জেনে নেওয়া যাক-

গন্ধহীনতা ও খাবারে অরুচি

করোনার অন্যতম উপসর্গ গন্ধহীনতা ও খাবারে অরুচি। এগুলো করোনার প্রাথমিক উপসর্গ। খাবার বা অন্য কোনো কিছুর গন্ধ না পেলে দেরি না করে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করিয়ে নেওয়া জরুরি। খাবারে অরুচি দেখা দিলেও দ্রুত স্বাস্থ্য পরীক্ষা করানো উচিত। স্বাস্থ্য পরীক্ষায় নেগেটিভ দেখা দিলেও সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে।

সর্দি-কাশি ও জ্বর

সর্দি-কাশি এবং জ্বর করোনার আরেকটি উপসর্গ। জ্বর দেখা দেওয়ার কারণে অনেকেই স্বাস্থ্য পরীক্ষা করছেন। চিকিৎসকরা বলছেন, স্বাস্থ্য পরীক্ষায় করোনা শনাক্ত করা না গেলেও রোগীকে সতর্ক অবস্থায় থাকতে হবে। কারণ সর্দি-কাশি ও জ্বর থাকলে করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি থেকেই যায়।

অবসাদগ্রস্ততা

জ্বর ও সর্দি-কাশি ছাড়াও করোনা রোগীদের মধ্যে অবসাদগ্রস্ততা দেখা দিতে পারে। করোনার তৃতীয় ঢেউয়ে কারও মধ্যে এ উপসর্গ দেখা দিলে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করানো উচিত। মনে রাখবেন, এ মুহূর্তে করোনার গতি বোঝা সম্ভব হচ্ছে না। তাই বার বার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করান।

গলা ব্যথা

করোনার উপসর্গ গলা ব্যথা ও সাধারণ গলা ব্যথার মধ্যে পার্থক্যের বিষয়ে অনেকেই জানেন না। একটানা কফ বের হওয়া, গলা ব্যথা ও জ্বর দেখা দিলে অবশ্যই স্বাস্থ্য পরীক্ষায় বিলম্ব করা উচিত নয়। স্বাস্থ্য পরীক্ষায় করোনা শনাক্ত না হলেও রোগীকে অন্যদের থেকে আলাদা রাখতে হবে।

গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা

গ্যাস্ট্রিক, ডায়রিয়া ও আমাশয়ের সমস্যা করোনার অন্যতম উপসর্গ। একসঙ্গে এসব উপসর্গ দেখা গেলে রোগীর স্বাস্থ্য পরীক্ষা করানো প্রয়োজন। স্বাস্থ্য পরীক্ষায় করোনা ধরা না পড়লেও সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে এবং একাধিক বার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করতে হবে।

Related Articles

Back to top button