আপনি বয়সের আগেই বুড়িয়ে যাচ্ছেন কি না জানাবে যেসব লক্ষণ, দেখেনিন

জীবনযাত্রায় অনিয়মের ফলে বয়সের আগেই অনেকে বুড়িয়ে যান। ফলে শারীরিক বিভিন্ন সমস্যা দেখা দেয় কমবয়সেই। যদিও বিষয়গুলো বেশিরভাগ মানুষই অবহেলা করেন।

বেশ কিছু লক্ষণ আছে যেগুলো দেখলে বুঝতে হবে, বয়সের আগেই আপনি বুড়িয়ে যাচ্ছেন। এসব লক্ষণ দেখলে অবশ্যই স্বাস্থ্যের প্রতি আরও নজর রাখতে হবে আপনাকে। জেনে নিন লক্ষণসমূহ-

>> হাঁটার গতি ধীর হয়ে যাওয়ার লক্ষণও কিন্তু জানান দেয় যে, আপনি খুব দ্রুতই বার্ধক্যে পৌঁছেছেন। এ লক্ষণ দেখলে দৈনিক হাঁটার পরিমাণ আরও বাড়িয়ে দিন। অন্তত ৩০ মিনিট হাঁটা জরুরি। প্রতি মিনিটে ১০০ ধাপ অতিক্রম করার চেষ্টা করুন। হাঁটার জন্য স্বস্তিদায়ক জুতা পরুন।

>> ত্বকে বাদামি রঙের দাগছোপ দেখা দেওয়া বার্ধক্যের আরও এক লক্ষণ। এসব দাগছোপ মুখ, হাত ও বাহুতে দেখা যায়। যদিও এসব দাগ ক্ষতিকারক নয়। তবে সানস্ক্রিন ছাড়া রোদে যারা বেশি সময় কাটান তাদের ত্বকে এমন ছোপ পড়তে পারে।

>> বার্ধক্যের সঙ্গে সঙ্গে স্মরণশক্তিও কমতে থাকে। নাম বা তথ্য মনে করতে বা আপনি কেন উপরে গিয়েছিলেন তা মনে করতে আপনার বেশি সময় লাগতে পারে। আলঝাইমার বা ডিমেনশিয়ার মতো রোগের ঝুঁকি বাড়ে বয়স বাড়লে।

>> শরীরের বিভিন্ন জয়েন্টের ব্যথাও বয়সের সঙ্গে সঙ্গে বাড়তে থাকে। এ সময় অস্টিওআর্থারাইটিস হওয়ার ঝুঁকি বাড়ে। পুরুষের মধ্যে ৪৫ বছরের পরে ও নারীদের ৫৫ বছরের পরে এই লক্ষণ দেখা দেয়। তবে বয়সের আগে জীবনযাত্রার অনিয়মের কারণেও এ সমস্যা দেখা দিতে পারে। এজন্য নিয়মিত শরীরচর্চা জরুরি।

>> বয়স বাড়তেই ত্বকের প্রাকৃতিক তেল কমে যায়। ফলে ত্বক শুষ্ক ও নিস্তেজ হয়ে পড়ে। বিশেষ করে যদি আপনার বয়স ৪০ এর বেশি হয়, তাহলে ত্বকের এ সমস্যা আরও বেড়ে যায়। এজন্য হালকা গরম জল দিয়ে মুখ পরিষ্কার করুন।

>> বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ত্বক পাতলা হয়ে যায় ও চর্বি হারায়। ফলে রক্তনালিগুলো আরও ভঙ্গুর হয়ে যায়। এমনকি কিছু ওষুধের কারণে ত্বকে ঘা হওয়ার ঝুঁকি বেড়ে যায়। যদি ত্বকে কালশিটে বা ঘা দেখা দেয় তাহলে দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

>> হঠাৎ করেই কি আপনার সিঁড়ি বেড়ে উঠতে কষ্ট হচ্ছে? এটিও কিন্তু বয়স বাড়ার লক্ষণ। তাই দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। এর পাশাপাশি ধীরে ধীরে সিঁড়ি বেয়ে ওঠার অভ্যাস করুন।

>> বার্ধক্য টের পাওয়ার আরও এক লক্ষণ হলো পেটে চর্বি বাড়া। বিশেষ করে মেনোপজের পরে নারীদের কোমরে চর্বি জমতে শুরু করে। কোমরের চর্বি হৃদরোগ ও টাইপ ২ ডায়াবেটিসের ঝুঁকি বাড়ায়।

কোমর ৩৫ ইঞ্চির বেশি হলেই এসব রোগের ঝুঁকি বেড়ে যায়। অন্যদিকে পুরুষের কোমরের মাপ ৪০ এর বেশি হলেই বিপদ। তাই শরীরচর্চার মাধ্যমে অতিরিক্ত মেদ ঝরান।

>> বর্তমানে ৩০ বা ৪০ বছরের পর থেকেই চোখে নানা ধরনের সমস্যা দেখা দেয়, যার মধ্যে গ্লুকোমা, ছানি, ম্যাকুলার অবক্ষয় অন্যতম।bs

Related Posts

© 2022 Totka24x7 - Theme by WPEnjoy · Powered by WordPress