মেয়াদ উত্তীর্ণ প্রসাধনী ফেলে না দিয়ে ব্যবহার করুন এই সব উপায়ে, দেখেনিন একঝলকে

নিজেকে সাজাতে ভালোবাসেন না এমন নারী খুব কমই আছেন। রূপচর্চায় নানা রকম প্রসাধনী ব্যবহার করে নারীরা। অনলাইনে ছাড় পেলেই কিনতে থাকেন একটার পর একটা রূপটানের সামাগ্রী। নামী-দামি প্রসাধনীগুলো কিনতে পকেটে বেশ চাপ পড়ে।

শখ করে রূপটানের সমাগ্রীগুলো কিনলেও অনেক ক্ষেত্রেই আমারা তা নিয়মিত ব্যবহার করি না। আর সেগুলোর যখন মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়ে যায় তখন আর আফশোসের শেষ থাকে না! তবে সামান্য বুদ্ধি খাটালেই এই মেয়াদ উত্তীর্ণ মেকআপের সামগ্রীগুলো পুনরায় ব্যবহার করতে পারেন। ভাবছেন এটা কী করে সম্ভব? চলুন জেনে নেয়া যাক কীভাবে সম্ভব-

আইশ্যাডো

কেনার সময় হরেক রঙের আইস্যাডো কিনলেও রূপটানের সময় আমরা কিছু নির্দিষ্ট রং ছাড়া ব্যবহার করি না। ফলে সেগুলির অপচয় হয়। মেয়াদ উত্তীর্ণ হওয়ার পরেও আপনি সেই আইশ্যাডোগুলি ব্যবহার করতে পারেন। স্বচ্ছ রঙের নেলপলিশ কিনে নিয়ে পছন্দের রঙের আইশ্যাডো গুঁড়ো করে মিশিয়ে নিন। তৈরি হয়ে যাবে ব্যবহারযোগ্য নেলপলিশ।

মাস্কারা

মাস্কারা নিয়মিত ব্যবহার না করলেই সেটি শুকিয়ে যায়। ব্যবহারযোগ্য থাকে না। সে ক্ষেত্রে আপনি মাস্কারাটি পুনরায় ব্যবহার করতে না পারলেও ব্রাশটি কিন্তু ব্যবহার করাই যায়। ব্রাশটি ভালো করে ধুয়ে নিন। তারপর ভ্রু আঁকার জন্য এটি ব্যবহার করন।

লিপস্টিক

অনেকেরই নানা রঙের লিপস্টিক জমাতে করতে ভালোবাসেন। তবে অনেক ক্ষেত্রেই লিপস্টিক গলে যায় বা ভেঙে যায়, ব্যবহারযোগ্য থাকে না। এ রকম হলে লিপস্টিকের সঙ্গে পেট্রোলিয়াম জেলি মিশিয়ে একটি কাচের পাত্রে ঢেলে রাখুন। খুব সহজেই তৈরি হয়ে যাবে ঘরোয়া ‘লিপ বাম’!

ফেস অয়েল

মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়ে যাওয়া ফেস অয়েল দিয়ে আপনি স্ক্রাবার বানিয়ে ফেলতে পারেন। এক্ষেত্রে তেলের সঙ্গে চিনি মিশিয়ে স্ক্রাব তৈরি করে নিন। এবার হাতের কনুই কিংবা গোড়ালি পরিষ্কার করতে পারেন।

কন্ডিশনার

মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়ে যাওয়া কন্ডিশনার ফেলে দেবেন না। বাড়িতে গায়ের রোম পরিষ্কার করার কাজে এটি ব্যবহার করতে পারেন। ত্বক নরম ও মোলায়েম থাকবে।

লিপ বাম

পুরোনো লিপ বাম আপনি ঠোঁটে না লাগাতে চাইলে ফাঁটা পায়ে নিরাময় ব্যবহার করতে পারেন।

টোনার

ফেস টোনারের মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়ে গিয়েছে? জানেন কি এই টোনার দিয়ে আপনি মোবাইলের স্ত্রিন, আয়না কিংবা যেকোনো কাচের সামগ্রী পরিষ্কার করে নিতে পারেন।

Related Posts

© 2022 Totka24x7 - Theme by WPEnjoy · Powered by WordPress