এখন আপনার কোষ্ঠকাঠিন্যর সমস্যা সমাধানে ঘি-এর সহজ ব্যবহার, জেনেনিন

পেটে অস্বস্তি বোধ করা থেকে শুরু করে পেট ব্যথার অন্যতম কারণ হচ্ছে কোষ্ঠকাঠিন্য। এ ধরনের সমস্যা কমানোর জন্য অনেকেই হারবাল অনেক পদ্ধতি অনুসরণ করেন। অনেকের হয়তো জানা নেই কোষ্ঠকাঠিন্য কমানোর জন্য ঘি মেশানো জল বেশ কার্যকরী।

ঘুম থেকে ডেকে ২ জনকে গুলি করে হত্যা
ঘি সুপারফুড হিসেবে পরিচিত। তবে এটা খাওয়ার কিছু পদ্ধতি আছে। ঘিয়ে থাকা বাট্রিক অ্যাসিড কোষ্ঠকাঠিন্য কমায়। এই অ্যাসিড বিপাকেরও উন্নতি করে। এটি পেটে ব্যথা, গ্যাস, পেটের ফোলাভাব এবং কোষ্ঠকাঠিন্যজনিত অন্যান্য সমস্যাও দূর করে।
ঘিয়ে থাকা প্রাকৃতিক ল্যাক্সাটিভ উপাদান হাড় শক্তিশালী করে। এছাড়া এটি ঘুম ও ওজন কমাতেও ভূমিকা রাখে।

যেভাবে খাবেন ঘি:
কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করতে ২০০ মিলিলিটার পরিমাণে হালকা গরম জলে এক চামচ ঘি মিশিয়ে প্রতিদিন সকালে খালি পেটে পান করুন। এতে ধীরে ধীরে এ সমস্যা কমে যাবে।

যখন হজম পদ্ধতি যেমন- অন্ত্র এবং কোলন রুক্ষ, শক্ত এবং শুষ্ক হয়ে যায় তখন কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা দেখা দেয়। ঘি’য়ে থাকা তেলতেলে বৈশিষ্ট্য গোটা পদ্ধতিকে নরম করতে সাহায্য করে। সেই সঙ্গে শরীর থেকে বর্জ্য বের করতে সহায়তা করে।

Related Posts

© 2022 Totka24x7 - Theme by WPEnjoy · Powered by WordPress