ওজন কমানোর জন্য সেরা খাবার কোনটা? দেখেনিন

ওজন কমানোর লক্ষ্যে পৌঁছানোর জন্য, বেহিসেবী খাবার খাওয়া নিয়ন্ত্রণ করা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ এবং কঠিন কাজগুলোর মধ্যে একটি। ওজন কমাতে চাইলে ইচ্ছেমতো খাবার খাওয়া বন্ধ করতে হবে। কারণ এটি আপনাকে লক্ষ্য থেকে দূরে সরিয়ে দিতে পারে। বেশিরভাগ মানুষই দিনের তিনবেলা প্রধান খাবারের বিষয়ে সতর্ক থাকলেও নাস্তার ক্ষেত্রে নিয়ন্ত্রণের কথা বেমালুম ভুলে যায়। যে কারণে খাবারের মাধ্যমে আরও বেশি ক্যালোরি গ্রহণ করে ফেলে এবং কাঙ্ক্ষিত সময়ের মধ্যে ওজন কমানো সম্ভব হয় না।

দুই বেলা খাবারের বিরতিতে মজাদার সব নাস্তার প্রলোভন থেকে দূরে থাকা সহজ নয়। যদি আপনিও এমনই সমস্যায় ভুগে থাকেন তবে নাস্তা হিসেবে খেতে হবে স্বাস্থ্যকর খাবার। যা খেতে সুস্বাদু লাগবে কিন্তু ওজন বাড়াবে না। এমন কী খাবার আছে? আজ তবে জেনে নিন সবচেয়ে স্বাস্থ্যকর নাস্তার কথা।

ওজন কমানোর জন্য স্বাস্থ্যকর খাবার

ওজন কমানোর চেষ্টা করার সময় সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো আপনার ক্যালোরি গণনা করা। ক্যালোরির একটি বড় অংশ তিনটি প্রধান খাবারের মধ্যে ভাগ করা হয় এবং স্ন্যাকসের জন্য শুধুমাত্র একটি ছোট অংশ বাকি থাকে। সুতরাং, কৌশলটি হলো এমন কিছু বেছে নেওয়া যাতে ক্যালোরি কম কিন্তু পেট ভরিয়ে রাখে। পপকর্ন কিন্তু পুরোপুরি তেমনই একটি খাবার। কম ক্যালোরি, স্বাস্থ্যকর এবং ফাইবার সমৃদ্ধ পপকর্ন হলো সেরা নাস্তা, বিশেষ করে যারা ওজন কমানোর চেষ্টা করছেন তাদের জন্য। যারা কম কার্ব ডায়েট অনুসরণ করেন তাদের জন্য এটি চমৎকার।

পপকর্ন খাওয়ার সঠিক উপায়

পপকর্ন নিঃসন্দেহে স্বাস্থ্যকর, তবে আপনার ওজন কমানোর ডায়েট প্ল্যানে এটি যোগ করার সময় আপনাকে সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। অন্য যেকোনো খাবারের মতোই, একবারে অত্যধিক পপকর্ন খেলে আপনার খাদ্য পরিকল্পনা নষ্ট হয়ে যেতে পারে। এছাড়া পপকর্ন কীভাবে তৈরি হয় সে বিষয়েও আপনাকে সতর্ক থাকতে হবে। রেস্তোরাঁ এবং মাল্টিপ্লেক্সে যেগুলো পরিবেশন করা হয় সেগুলো মাখন এবং লবণ দিয়ে ভরা থাকে। এ দুটি উপাদান ওজন কমানোর চেষ্টা করার সময় পরিমিত খাওয়া উচিত। ওজন কমানোর চেষ্টা করার সময় এএয়ার-পপড পপকর্ন খাওয়া উচিত, মাখনে ভাজা নয়।

পপকর্নের পুষ্টি

এক কাপ এয়ার-পপড পপকর্নে মাত্র ৩০ ক্যালোরি থাকে। এছাড়াও, এটি প্রোটিন, ফোলেট, নিয়াসিন, রিবোফ্লাভিন, থায়ামিন, ভিটামিন বি, এ, ই এবং কে এর মতো অন্যান্য স্বাস্থ্যকর পুষ্টি উপাদানে সমৃদ্ধ থাকে। অ্যান্টিঅক্সিডেন্টস জার্নালে প্রকাশিত একটি গবেষণায় বলা হয়েছে যে, পপকর্ন পলিফেনল সমৃদ্ধ, এটি অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট যা প্রদাহ কমাতে সাহায্য করতে পারে। ৭৫ গ্রাম এয়ার-পপড পপকর্নে ৩০০ মিলিগ্রাম পর্যন্ত পলিফেনল থাকে।

পপকর্ন খাওয়ার অন্যান্য সুবিধা

হালকা এবং তুলতুলে এই নাস্তা শুধুমাত্র যারা ওজন কমানোর চেষ্টা করছেন তাদের জন্যই ভালো নয়, এটি উপকারী যে কারও জন্যই। যেহেতু এতে বেশ কয়েকটি স্বাস্থ্যকর পুষ্টি রয়েছে এবং এটিকে আপনার বিভিন্ন রোগের ঝুঁকি কমাতে সাহায্য করতে পারে। পপকর্ন আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য কী উপকার করে তা জেনে নিন-

* পপকর্ন খেলে তা শরীরে ক্যান্সার কোষের বৃদ্ধিকে বাধা দিতে পারে।

* এটি পরিপাকতন্ত্র নিয়ন্ত্রণে রাখতে এবং কোষ্ঠকাঠিন্য প্রতিরোধ করতে সাহায্য করতে পারে।

* রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করতে পারে।

* হৃদরোগের ঝুঁকি কমাতে পারে।

* দৃষ্টিশক্তি বাড়াতে পারে।

Related Posts

© 2022 Totka24x7 - Theme by WPEnjoy · Powered by WordPress