প্রথম দেখায় ভালোবাসতে যে ৫ ‘ভুল’ আপনি করতেই পারেন

প্রথমবার দেখা করার অনুভূতিই আলাদা। এদিন সবাই নিজেকে সেরা হিসেবে উপস্থাপন করার চেষ্টা করে। যে হলেও হতে পারে ভবিষ্যৎ জীবনের সঙ্গী, তার সামনে কে আর বোকাসোকা সেজে থাকতে চায়! শুধু পোশাক-পরিচ্ছদে স্মার্ট হলেই হবে না, কথা এবং আচরণেও হতে হবে স্মার্ট।

প্রথমবার দেখা হওয়ার দিন কথা বলার ক্ষেত্রে থাকতে হবে খুব সতর্ক, এমনটাই তো এতদিন জেনে এসেছেন। এর বড় কারণ আপনি তখন যা কিছু বলবেন, সেগুলোই আপনাকে অপরজনের সামনে একটি ধারণা তৈরি করে দেবে। কিন্তু আসলেই কি এতটা মেপে মেপে কথা বলা যায়? তাতে আপনাকে কতটুকুই বা প্রকাশ করা যায়? এত বেশি সতর্ক থাকার বদলে বরং আপনি যা এবং যেমন, সে সম্পর্কে জানিয়ে দেওয়াই কি ভালো নয়? প্রথমবার দেখা হওয়ার ক্ষেত্রে কিছু ভুল পরামর্শগুলো দেওয়া হয়, যেগুলো আপনি ভাঙতে পারেন-

প্রাক্তন সম্পর্কে জানান

প্রায় সবাই আপনাকে পরামর্শ দেবে যে, প্রথমবার দেখা হওয়ার দিন নিজের প্রাক্তন সম্পর্কে কিছু বলবেন না। কিন্তু অতীত সম্পর্ক থাকতেই পারে, এটি এমন কোনো অপরাধ নয় যে জানানো যাবে না। হয়তো আপনি প্রাক্তন সম্পর্কে কথা বলতে পছন্দ করেন না, কিন্তু আপনার যে অতীতে একটি সম্পর্ক ছিল, এটুকু জানানোর মতো দায়িত্বশীল আপনি হতেই পারেন। শুরুতেই জানিয়ে দিলে একে অপরের সম্পর্কে সিদ্ধান্ত নেওয়া সহজ হবে।

ধর্ম বা রাজনীতি নিয়ে কথা বলুন

প্রথম দেখায় ধর্ম বা রাজনীতি নিয়ে কথা বলতে নিষেধ করা হয়। তবে আপনার তা মেনে চলার দরকার নেই। আপনার পছন্দ, মতাদর্শ এবং ধর্মের প্রতি মনোভাব সম্পর্কে তাকে পরিষ্কারভাবে বলতে পারেন। এতে আপনাকে বুঝতে পারা তার জন্য সহজ হবে। কারণ সে যদি অন্য মতাদর্শের হয়ে থাকে, তবে সম্পর্কের ভবিষ্যৎ সুন্দর নাও হতে পারে।

প্রত্যাশার কথা জানান

আপনি ভবিষ্যতে কী আশা করেন সে সম্পর্কে আলোচনা করার জন্য প্রথম দেখার সময়টি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। আপনাকে প্রথমে আপনার প্রত্যাশার বিষয়ে আলোচনা করতে হবে কারণ দুজন একই সরলরেখায় না থাকলে সম্পর্কে জড়ানোর কোনো মানে নেই। আবেগের বিনিয়োগ করার আগে পরস্পর সম্পর্কে জেনে নেওয়া ভালো।

ইচ্ছে হলে সব খাবারই খান

প্রথমবার দেখা করতে গিয়ে সামনে রাখা খাবার সব খাওয়া যাবে না, এমন পরামর্শ নিশ্চয়ই শুনেছেন? আপনার পেটে যদি ক্ষুধা থাকে এবং সামনে যদি খাবার থাকে, তবে খাবেন না কেন? বরং খাবার নষ্ট করলে তা আপনার সচেতনহীনতার উদাহরণ হয়ে থাকবে। আপনি কোনো পুষ্টিবিদ বা প্রশিক্ষকের সঙ্গে দেখা করছেন না যে তার ইচ্ছে অনুযায়ী মেপে খেতে হবে। যতটুকু খেতে পারবেন ততটুকুই অর্ডার করুন এবং সবটুকুই খেয়ে নিন। তবে প্রথম দেখার দিন এমন খাবার অর্ডার না করাই ভালো যা আগে কখনো খাওয়া হয়নি। কারণ সেটি খেতে ভালো না লাগলে খাবারটুকুই নষ্ট হবে।

বিল ছেলে কিংবা মেয়ে যে কেউ দিতে পারে

খাবারের বিল যে ছেলেকেই দিতে হবে, এই ধারণা থেকে বের হয়ে আসুন। এটি পুরুষটির চাপিয়ে দেবেন না। বিল দিতে পারে ছেলে কিংবা মেয়ে যে কেউ। খাবারের খরচ অতিরিক্ত করবেন না। সীমার মধ্যে থাকুন। প্রয়োজনে দুজন মিলেও ভাগ করে বিল দেওয়া যেতে পারে, যদি দুজনেই স্বনির্ভর হন।

Related Posts

© 2022 Totka24x7 - Theme by WPEnjoy · Powered by WordPress