কন্ডিশনারও হয়ে ওঠে চুলের পরম শত্রু! জেনে নিন কারণ

শ্যাম্পু করার পর পরিষ্কার স্ক্যাল্পে কন্ডিশনার অতি প্রয়োজনীয়। ভালো কন্ডিশনিংয়ের প্রভাবে চুল নতুন জীবন পায়। জটমুক্ত হয়ে মসৃণতা পায়। শ্যাম্পুর ফলে চুলের হারিয়ে যাওয়া আর্দ্রতা ফিরিয়ে আনে কন্ডিশনার।

কিন্তু সব কিছুর মতো অতিরিক্ত হয়ে গেলে কন্ডিশনার ক্ষতিকর। ওভার কন্ডিশনিংয়ের ফলে চুলের অনেক ক্ষতি হয়। স্বাভাবিক উজ্জ্বলতা হারিয়ে চুল নিষ্প্রভ হয়ে পড়ে। ফলস্বরূপ, চুল ধোওয়া সত্ত্বেও স্ক্যাল্প ও চুল চিটচিটে হয়ে থাকে। একাধিক উপায়ে চুলের এই অবস্থা এড়িয়ে যেতে পারেন।

চুলে যতটা দরকার, ঠিক ততটাই কন্ডিশনার দেবেন। তারপর খুব ভালো করে ধুয়ে ফেলুন। চুলের স্বাস্থ্যের জন্য কন্ডিশনার দরকার। তবে মনে রাখুন এই বিষয়গুলিও-

খুব ঘন ঘন চুলে কন্ডিশনার দেবেন না। চুলে বেশিক্ষণ কন্ডিশনার রাখাও যাবে না। ঠান্ডা জলে খুব ভালো করে চুলের কন্ডিশনার ধুয়ে ফেলুন। এর ফলে চুল হয়ে উঠবে স্বাস্থ্যোজ্জ্বল। রিনজ অফ কন্ডিশনার ব্যবহারের সময় লিভ ইন কন্ডিশনার ব্যবহার করবেন না। অতিরিক্ত স্টাইলিং প্রডাক্টের ব্যবহারেও চুল চিটচিটে হয়ে পড়ে

চুলের গোড়া থেকে কন্ডিশনার পরিষ্কার করতে ব্যবহার করুন ক্লেঞ্জিং শ্যাম্পু। চুলের ধরন বুঝে বাড়িতেই তৈরি করুন হেয়ার স্ক্রাব। এক্সফোলিয়েশনের ফলে স্ক্যাল্প থেকে চিটচিটে প্রলেপ দূর হয়ে যাবে।

চুলের স্বাভাবিক আকার ও টেকচার ধরে রাখে প্রোটিন ট্রিটমেন্ট। মটরশুঁটির দানার আকারের কন্ডিশনার নিয়ে চুলের মাঝের অংশ থেকে চুলের শেষ পর্যন্ত লাগিয়ে অল্প সময় অপেক্ষা করুন। তারপর ধুয়ে নিন ভালো করে।

Related Posts

© 2022 Totka24x7 - Theme by WPEnjoy · Powered by WordPress