গরমে সিলিং ফ্যান কিনবেন? যেসব বিষয় খেয়াল রাখতে জেনেনিন

সিলিং ফ্যান, গরমে অপরিহার্য বৈদ্যুতিক সরঞ্জাম। একটু পুরনো হয়ে গেলে অনেক ফ্যানে ঘড়ঘড় আওয়াজ হয়। কিছু ফ্যানের গতি কমে যায়। তখন অনেকেই মেরামতির রাস্তায় না গিয়ে নতুন ফ্যান কেনেন। কিন্ত যে সিলিং ফ্যান কিনছেন, তা আপনার জন্য কতটা উপযোগী কীভাবে বুঝবেন। জেনে নেয়া যাক নতুন সিলিং ফ্যান কেনার সময় কী কী খেয়াল রাখতে হবে।

• শুরুতেই ঠিক করতে হবে, কত দামে আপনি ফ্যান কিনতে চান।

• কেমন আকারের ফ্যান কিনবেন নির্ধারণ করতে হবে। মাথায় রাখতে হবে, পাখা যত বড় হবে, বাতাস ছড়াবে তত বেশি। অন্যদিকে, ছোট ফ্যানগুলো খুব জোরে বাতাস দেবে। তবে সারা ঘরে ছড়াবে না। তাই ঘরের সাইজ অনুযায়ী ফ্যান নির্বাচন করা উচিত। জানুন, ঘরের জন্য কোন আকারের ফ্যানটি উপযুক্ত—

৫০ বর্গফুটের এর নীচে ৩৬ ইঞ্চি পর্যন্ত
৫০ থেকে ৭০ বর্গফুটের মধ্যে ৪২ ইঞ্চি পর্যন্ত
৭১ থেকে ১৫০ বর্গফুটের মধ্যে ৪৮ ইঞ্চি পর্যন্ত
১৫০ থেকে ২৫০ বর্গফুট পর্যন্ত ৫৪ ইঞ্চি পর্যন্ত
২৫০ বর্গফুটের উপরে দুই বা তার বেশি ফ্যান প্রয়োজন

• নতুন ফ্যান কেনার সময় আরএমপি এবং সিএমএম পরীক্ষা করা গুরুত্বপূর্ণ৷ আরপিজি প্রতি মিনিটে ফ্যানের সর্বোচ্চ গতিকে বোঝায়। অন্যদিকে, সিএমএম বোঝায় যেখানে ফ্যান চলছে, সেখানে কতটা বাতাস খেলছে তাকে বোঝায়।

• নতুন ফ্যানে ব্লেড দেখা উচিত। এখন ৭ ব্লেডেরও ফ্যান পাওয়া যায়। তবে ৩ ব্লেডের ফ্যানগুলো তুলনামূলকভাবে বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী। ব্লেডের বর্ধিত সংখ্যা দামও বাড়িয়ে দেয়। এছাড়াও ধাতুর ওপর অ্যালুমিনিয়ামের প্রলেপ ব্লেডগুলো বেশি ভালো।

• ফ্যান শুধু প্রয়োজন নয়, অন্দরসজ্জারও অঙ্গ। একাধিক রঙ, নকশা এবং আকারে মিলছে ফ্যান। তাই কেনার আগে কোন ঘরের জন্য কিনছেন, তা মাথায় রাখুন।

Related Posts

© 2022 Totka24x7 - Theme by WPEnjoy · Powered by WordPress