লেবুর খোসার ত্বকের পক্ষে কিছু বিশেষ উপকারিতা গুনাগুন সম্পর্কে জেনেনিন বিস্তারিত

লেবুর রস চিপে বের করে ফেলে দেওয়া হয় এর খোসা। তবে জানেন কি, লেবুর খোসা ফেলনা নয়। এটি দিয়েও করা যায় রূপচর্চা। ত্বকের বিভিন্ন সমস্যার সমাধানে ব্যবহার করতে পারেন লেবুর খোসা। কারণ লেবুতে যত উপকারী উপাদান আছে; এর খোসাতেও আছে নানা পুষ্টি উপাদান।

বিউটিশিয়ানদের মতে, লেবুর খোসা গুঁড়ো করে তার সঙ্গে অন্যান্য প্রাকৃতিক উপাদান মিশিয়ে তৈরি করা যেতে পারে বিশেষ ফেসপ্যাক। এটি মুখে ব্যবহারের ফলে ত্বক পাবে প্রয়োজনীয় ভিটামিন সি এবং ফাইবারসহ একাধিক উপকারী উপাদান।

সবচেয়ে অবাক করা বিষয় হলো, লেবুর খোসার গুঁড়ো ব্যবহারের ফলে ত্বকের উজ্জ্বলতা তো বাড়েই; সঙ্গে দাগ-ছোপ দূর হয় সহজেই। শুধু তাই নয়, ত্বককে নরম করে তুলতেও লেবুর খোসার বিকল্প নেই। চলুন তবে জেনে নেওয়া যাক কীভাবে তৈরি করবেন এই ফেসপ্যাক-

>> এক চামচ করে পাতি লেবুর খোসার গুঁড়ো, চন্দন গুঁড়ো এবং অ্যালোভেরা জেল মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণটি সারা মুখে লাগিয়ে ২০ মিনিট অপেক্ষা করে ধুয়ে নিন। ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াতে এই ফেসপ্যাক সপ্তাহে অন্তত ৩ দিন ব্যবহার করুন।

>> ত্বকের সানট্যান দূর করতে তৈরি করে নিতে পারেন লেবুর খোসা ও টকদইয়ের ফেসপ্যাক। লেবুর খোসার গুঁড়ো ও ১-২ চামচ টকদই মিশিয়ে ত্বকে ব্যবহার করুন। এরপর ২০ মিনিট অপেক্ষা করে মুখ ধুয়ে নিন। এটি সপ্তাহে ২ বার ব্যবহার করুন।

>> ত্বকের উজ্জ্বলতা ও কালচে ছোপ দূর করতে ব্যবহার করুন পাতি লেবুর খোসার গুঁড়ো, দুধ ও বেসনের ফেসপ্যাক। সবগুলো উপকরণ মিশিয়ে ত্বকে ব্যবহার করুন।

এতে ত্বকে জমে থাকা মৃত কোষ দূর হবে। এই ফৈসপ্যাক ব্যবহারে ত্বকের বলিরেখাও দূর হয়। সপ্তাহে অন্তত ৩ বার এই ফেসপ্যাক ব্যবহার করুন।

>> এ ছাড়াও লেবুর খোসার গুঁড়ো ত্বকে ফেস ওয়াশের মতো ব্যবহার করতে পারেন। এতে ত্বকের ময়লা দূর হবে সহজেই। যদি লেবুর খোসা গুঁড়ো কেরতে না পারেন তাহলে তাজা খোসা ব্লেন্ড করেও ব্যবহার করতে পারেন।

Related Posts

© 2022 Totka24x7 - Theme by WPEnjoy · Powered by WordPress