চুলের যত্নে কফির ব্যবহার সম্পর্কে কিছু বিশেষ তথ্য জেনেনিন

কফি কীসে ব্যবহার করেন? প্রশ্ন শুনে অবাক হচ্ছেন নিশ্চয়ই। ভাবছেন, কফি তো সবাই পান করে, আবার কীসে ব্যবহার করবো! শুধু পানীয় হিসেবেই নয়, কফি ব্যবহার করা যায় ত্বক আর চুলের যত্নেও। কফি দিয়ে তৈরি হেয়ার প্যাক নিয়মিত ব্যবহার করলে চুল দ্রুত বাড়ে। বিভিন্ন কারণে চুল ক্ষতিগ্রস্ত হলে কফি কাজে লাগাতে পারেন। চলুন জেনে নেয়া যাক, কফি দিয়ে কীভাবে চুলের যত্ন নেবেন-

কফি দিয়ে চুল ধোয়া
কফি দিয়ে চুল ধুলে তা চুলের দ্রুত বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। প্রথমে ২ টেবিল চামচ গ্রাউন্ড কফি ও ১ কাপ জল নিন। এবার ১ কাপ কফি তৈরি করে তা ঠান্ডা হতে দিন। মাথায় ভালো করে শ্যাম্পু করে মাথা মুছে ফেলুন এবং চুল থেকে অতিরিক্ত জল ঝরিয়ে ফেলুন। এরপর মাথার ত্বকে এবং চুলে ঠান্ডা কফি ঢালুন। পাঁচ মিনিট ম্যাসাজ করুন।৩০ মিনিট চুল ঢেকে রাখুন। তারপর হালকা গরম জলর সাহায্যে ভালো করে চুল ধুয়ে ফেলুন এবং শুকিয়ে নিন। দ্রুত ফলাফলের জন্য সপ্তাহে ২-৩ বার এটি করতে পারেন।

কফি, নারিকেল তেল ও দই
চুলে পুষ্টি জোগায় নারিকেল তেল। এটি চুলকে শক্তিশালী করতে চুলের ফলিকলগুলোকে পুষ্ট করে। আর দইয়ে আছে ল্যাকটিক অ্যাসিড, যা মাথার ত্বকের জন্য খুবই উপকারী। প্রথমে ২ টেবিল চামচ কফি পাউডার, ২ টেবিল চামচ নারিকেল তেল ও ৩ টেবিল চামচ দই নিন। এবার একটি পাত্রে কফি পাউডার, নারিকেল তেল ও দই নিয়ে ভালোভাবে মিশিয়ে ঘন পেস্ট তৈরি করুন। এরপর হাতে পরিমাণমতো এই মিশ্রণটি নিয়ে তা মাথার ত্বকে এবং চুলে ভালোভাবে লাগান। এরপর এক ঘণ্টা চুল ঢেকে রাখুন। এক ঘণ্টা পর হালকা শ্যাম্পু দিয়ে চুল ভালো করে ধুয়ে ফেলুন। এটি সপ্তাহে ২-৩ বার করতে পারেন।

কফি স্ক্রাব
মাথার ত্বকেও প্রয়োজন পড়ে স্ক্রাবের। এটি স্ক্যাল্পের স্বাস্থ্য এবং আপনার চুল ভালো রাখতে সাহায্য করে। প্রথমে ৮ টেবিল চামচ কফি ও ১ কাপ জল নিন। এককাপ কফি তৈরি করে তা ঠান্ডা হতে দিন। এরপর পরিমাণমতো হাতে নিয়ে পাঁচ মিনিট ধরে মাথার ত্বকে ভালোভাবে স্ক্রাব করুন। মাথা ধুয়ে চুল শুকিয়ে নিন। এটি সপ্তাহে দু’বার করুন।

Related Posts

© 2022 Totka24x7 - Theme by WPEnjoy · Powered by WordPress