যেসব খাবার মাইক্রোওয়েভে গরম করলে বিপদ হতে পারে? দেখেনিন

প্রতিদিন বাজার করে টাটকা খাবার খাওয়ার মতো সময় এখন আর আমাদের নেই। একবারে গাদাখানেক খাবার কিনে রেফ্রিজারেটরে রাখা আবার সেই খাবার রান্না করে ফ্রিজিং। তারপর যখন দরকার হয় তখন বের করে ওভেনে গরম করে খেয়ে নেয়া। আধুনিক জীবনযাপনে এমন চিত্র প্রায় প্রতি ঘরেই।

বিশেষজ্ঞরা পরামর্শ দিচ্ছেন এই অভ্যাস থেকে বের হয়ে আসতে। ‘জার্নাল অব এগ্রিকালচারকাল ফুড অ্যান্ড কেমিস্ট্রি’-র একটি প্রতিবেদনে একদল গবেষক পরীক্ষা করে দেখিয়েছেন, মাইক্রোওয়েভে গরম করা খাবারে ভিটামিন বি১২ ক্রমে অকার্যকর হয়ে পড়ে। একেকবার খাবার গরম করলে ৩০ থেকে ৪০ শতাংশ ভিটামিন বি১২ নষ্ট হয় খাবারের।

দুধ ও মাংস জাতীয় খাবারে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন বি১২ থাকে। তাই এধরনের খাবার মাইক্রোওয়েভে গরম করলে খাবারের খাদ্যগুণ নষ্ট হয় ব্যাপকভাবে। জেনে নিন কোন খাবারগুলো মাইক্রোওয়েভে গরম করা উচিত নয়-

দুধজাতীয় খাবার
দুধ জাতীয় কোনো খাবারই মাইক্রোওয়েভে দেওয়া উচিত নয়। এতে ব্যাপক ক্ষতি হয় খাবারের। খাদ্যগুণ নষ্ট করে দেওয়ার কারণে এড়িয়ে চলুন এই অভ্যাস।

মাছ
মাছের ঝোল মাইক্রোওয়েভে গরম করলে এর খাদ্যগুণ অনেকটা নষ্ট হয়। তাই মাছের কোনো স্ন্যাক্সও মাইক্রোওয়েভে না দেওয়ার পক্ষপাতী বিশেষজ্ঞরা।

বেবিফুড
বাজারের কৌটো দুধ বা শিশুদের অন্য খাবারগুলি কখনো মাইক্রোওয়েভে দেওয়া উচিত নয়। শিশুর ত্বক ও হজমপ্রক্রিয়াকে ক্ষতি করে মাইক্রোওয়েভে গরম করা বেবিফুড।

মাখনযুক্ত খাবার
মাখন রয়েছে এমন খাবার মাইক্রোওয়েভে দিলে রাসায়নিক বিক্রিয়ার ফলে শরীরের ক্ষতি হতে পারে।

ডিম
ডিমের ঝোল বা ডিম মেশানো আছে এমন কোনো খাবার মাইক্রোওয়েভে গরম করবেন না। ডিমের কুসুমের উপর মাইক্রোওয়েভ বিরূপ প্রভাব ফেলে।

ভাত
মাইক্রোওয়েভে কখনো ভাত গরম করা উচিত নয় বলে মত দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। মাইক্রোওয়েভের রাসায়নিক চাল জাতীয় খাবারের খাদ্যগুণ একেবারেই নষ্ট করে দেয়।

Related Posts

© 2022 Totka24x7 - Theme by WPEnjoy · Powered by WordPress