এক মিনিটেই উজ্জ্বল ত্বক, দূর হবে ব্রণও! দেখেনিন

এমন কি কোনো জাদু আছে যার মাধ্যমে মাত্র এক মিনিটেই আপনি পরিষ্কার আর উজ্জ্বল ত্বক পাবেন? এক মিনিটিই উজ্জ্বল ত্বক, এমনকী ব্রণ আর দাগ-ছোপ থেকে মুক্তি, তাও আবার কোনোরকম পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া ছাড়া! হ্যাঁ, এমনটাও সম্ভব। আর সেজন্য আপনাকে শুধু এক মিনিট সময়ই দিতে হবে, বাড়তি আর কোনোকিছুই লাগবে না!

জেনে নিন কীভাবে মাত্র এক মিনিটেই ত্বকের এমন পরিবর্তনের উপায়-

এক মিনিটের ত্বক পরিচর্যা আসলে কী: ‘সিক্সটি সেকেন্ডস রুল’ বা এক মিনিটের ত্বক পরিচর্যার মূল কথা হল ফেস ক্লিনজার দিয়ে খুব ভালো করে মুখ ধোয়া। মুখে ক্লিনজার লাগানোর পর ৬০ সেকেন্ড অর্থাৎ একদম এক মিনিট ধরে মাসাজ করে তারপর জলর ঝাপটায় ধুয়ে ফেলতে হবে মুখ। আর তাতেই মিলবে উপকার! অর্থাৎ এই এক মিনিটের মধ্যে শুধু (ক্লিনজার ছাড়া আর কোনো উপকরণেরই দরকার নেই!

যে কারণে এই পদ্ধতি কার্যকর: সাধারণত সারাদিনের পর বাড়ি ফিরে বা ঘুম থেকে উঠে আমরা যখন মুখ ধুই, তখন খুব একটা সময় নিয়ে ধুই না। মুখে ক্লিনজার লাগিয়ে একটু ঘষে ফেনা করেই তারপর ধুয়ে নিই। ত্বক বিশেষজ্ঞেরা বলছেন, এই অল্প সময়ে মুখে জমে থাকা ঘাম, তেল, ধুলোময়লা বা মেকআপের অবশিষ্ট অংশ সম্পূর্ণ ওঠে না। বেশ কিছুটা নোংরা ত্বকেই থেকে যায় এবং তার অবশ্যম্ভাবী ফল ত্বকে ব্রেকআউট।

খুব ভালো করে মুখ ধোয়ার জন্য অন্তত এক মিনিট সময় দরকার। আপনি এই সময়টা ত্বককে দিচ্ছেন মানে আপনি সচেতনভাবে মুখ ধুচ্ছেন। নাকের পাশ, চিবুকের খাঁজ, কপাল ভালো করে পরিষ্কার করলে একদিকে যেমন ধুলোময়লা সব উঠে যায়, তেমনি মাসাজের ফলে ত্বকে পর্যাপ্ত রক্তচলাচলও হয়। আর এই দুইয়ের মিলিত ফল হল ব্রণহীন, দাগহীন, উজ্জ্বল ত্বক।

যেভাবে ব্যবহার করবেন: আপনার ত্বকের উপযোগী কোমল ক্লিনজিং নিয়ে মুখে লাগিয়ে ধীরে ধীরে মাসাজ করুন। বিশেষ নজর দিন নাকের পাশ, চিবুকের খাঁজের মতো অংশগুলোয়। হালকা হাতে চক্রাকারে মাসাজ করুন। আঙুল দিয়েই মাসাজ করুন, কোনোরকম ব্রাশ ব্যবহার করার দরকার নেই।

ত্বক পুরোপুরি পরিষ্কার করার জন্য দরকার ডাবল ক্লিনজিং। তাই এক মিনিট সময়টাকে ৩০ সেকেন্ড করে দুই ভাগ করে নিন। প্রথমবার ক্লিনজার লাগিয়ে ৩০ সেকেন্ড মাসাজ করে ধুয়ে ফেলুন, তারপর আর একবার পুরো প্রক্রিয়াটা দ্বিতীয়বার করুন। সপ্তাহখানেক করলেই বুঝতে পারবেন কীভাবে আপনার (ত্বক ঝলমল করে উঠছে।

Related Posts

© 2022 Totka24x7 - Theme by WPEnjoy · Powered by WordPress