ডিমের খোসা যেসব কাজে লাগাতে পারেন?

এই সময়ে যে খাবারটি সবচেয়ে বেশি খেতে হচ্ছে, তা হলো ডিম। মাছ-মাংসের চেয়ে ডিম অনেকটাই সহজলভ্য। তাইতো প্রোটিনের উৎস হিসেবে ডিমকেই বেছে নিচ্ছেন অনেকে। ডিমের উপকারিতার কথা কারো অজানা নয়। কিন্তু ডিমের খোসারও রয়েছে অনেক উপকারিতা। তাই বলে আপনাকে কেউ ডিমের খোসা খেতে বলছে না! বরং এটি ফেলে না দিয়ে কীভাবে কাজে লাগানো যায়, তা জেনে নিন-

ডিমের খোসা ক্যালসিয়ামে ভরপুর। সেই কারণে গাছের সার হিসেবে ডিমের খোসার ব্যবহার অতুলনীয়। তাই ফেলে না দিয়ে ডিমের খোসা গুঁড়া করে গাছের গোড়ায় দিতে পারেন। এর থেকে গাছ পুষ্টি পাবে।

ডিমের খোসা ফার্স্ট এইড হিসেবে ব্যবহৃত হতে পারে। ডিম সেদ্ধ করার পর খোসা এবং এগ হোয়াইটের মধ্যে যে পাতলা সাদা একটা আবরণ থাকে, সেটি সাধারণ কাটা-ছেঁড়া সারাতে দারুণ উপকারী হতে পারে। ওই আবরণটি ব্যান্ডেজের মতো কাটা জায়গায় লাগিয়ে রাখলে খুব তাড়াতাড়ি রক্ত বন্ধ হয়ে যায়।

রান্নাঘরের সিংক পরিষ্কার করতেও ডিমের খোসা দারুণ কাজে লাগতে পারে। সিংকের নলে খাবারের টুকরো আটকে অনেক সময় মুখ বন্ধ হয়ে যায়। বাসন পরিষ্কার করার সময় সিংকের মুখে একটু বড় সাইজের ডিমের খোসা রেখে দিলে খাবারের টুকরো তার মধ্যে থেকে যাবে।

রুপার বাসন পরিষ্কার করতেও ডিমের খোসা ব্যবহার করা যেতে পারে। হার্ডবয়েল্ড ডিমের খোসা গুঁড়া করে তা দিয়ে রূপার বাসন আর গয়না পরিষ্কার করলে একদম ঝকঝকে হয়ে যাবে।

ফ্লাস্ক পরিষ্কার করতেও ডিমের খোসা ব্যবহার করতে পারেন। ডিমের খোসা টুকরা করে ফ্লাস্কের ভেতরে ফেলে দিন, তার মধ্যে গরম জল দিন। এবার মুখ বন্ধ করে ভালো করে ঝাঁকিয়ে নিয়ে খোসাসুদ্ধ জলটা ফেলে দিন। দেখবেন ফ্লাস্ক একদম নতুনের মতো হয়ে গেছে।

Related Posts

© 2022 Totka24x7 - Theme by WPEnjoy · Powered by WordPress