গাটের স্বাস্থ্য ভাল রাখতে নিত্যদিনের খাদ্যতালিকায় রাখুন এই সব খাবার, জানাচ্ছে চিকিৎসক

শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে এবং বজায় রাখতে গাট হেলথ ভীষণ জরুরী। এই গাট বা গ্যাস্ট্রোইনটেস্টিনাল ট্র্যাক্টে থাকা গুড ব্যাক্টেরিয়া গাট ভাল রাখতে প্রয়োজনীয় ভিটামিন তৈরি করে, শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বজায় রাখে এবং শরীরের ক্ষতিকারক ব্যক্টেরিয়া নষ্ট করে দেয়। এছাড়াও খাবার হজমেও সাহায্য করে। তাই শরীর সুস্থ রাখতে গাট হেলথ ভাল রাখা অত্যন্ত আবশ্যক।  বিশেষ করে, আবহাওয়া পরিবর্তনের সময় শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বজায় রাখতে নিত্যদিনের খাদ্যতালিকায় এমন খাবার রাখা উচিত যা আমাদের গাটের স্বাস্থ্য ভাল রাখে-

হোল গ্রেনস বা শস্যদানা (whole grains)

শস্যদানায় প্রচুর পরিমানে প্রয়োজনীয় পুষ্টি যেমন ফাইবার, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ও অন্যান্য মাইক্রোনিউট্রিয়েন্ট থাকে। শস্যে থাকা ফাইবার আমাদের গাটের স্বাস্থ্যের  জন্য প্রিবায়োটিকের কাজ করে। এটা অন্ত্রে থাকা ভাল ব্যাক্টেরিয়ার স্বাস্থ্য ভাল থাকে। নিত্যদিনের খাদ্য তালিকা শস্যদানা থাকলে কোষ্ঠকাঠিন্যের মতো সমস্যার হাতে থেকেও রেহাই মেলে।

সিনবায়োটিক ফুড (synbiotic food)

সিনবায়োটিক খাবারে প্রয়োজনীয় প্রিবায়োটিক ও প্রোবায়োটিক দুই উপাদানই থাকে। এটা গাটর গুড ব্যাক্টেরিয়া বা মাইক্রোবসের স্বাস্থ্য ভাল রাখে। যেমন দই বা ইয়গহার্টের সঙ্গে ব্লুবেরি খাওয়া। খাবারের গুন আরও বাড়িয়ে তুলতে এতে হাই ফাইবার যুক্ত শস্য দানা, বাদাম, বীজ, সবজি, ফল ডাল যোগ করলে এটা গাটের জন্য আরও পুষ্টিকর হয়ে যায়।

শাকপাতা (green leafy vegetables)

শাক পাতায় ও সবজিতে প্রচুর পরিমানে ডায়েটারি ফাইবার, ভিটামিন, মিনারেল ও আয়রন থাকে। যেমন পালং শাক, ব্রকোলি ও কালে। নিত্য দিনের খাদ্যতালিকায় এই ধরনের শাক সবজি রাখলে গাটের স্বাস্থ্য ভাল থাকে ও ঠিক ভাবে কাজ করতে সাহায্য করে। প্রচুর পরিমানে ফাইবার ও শাক পাতা খেলে গাটে থাকা মাইক্রোবায়োমের স্বাস্থ্য ভাল রাখে।

অ্যান্টি ইনফ্লেমেটারি ফুড (anti-inflammatory food)

শরীরে কোনও সংক্রমণ বাসা বাঁধলে তার মোকাবিলা করতে হোয়াইট ব্লাড সেল নিঃস্বরণ করে আমাদের শরীর। এর ফলে আমাদের শরীর ভাল থাকে কিন্তু অনেক ক্ষেত্রে সংক্রমণ প্রতিরোধ করতে গিয়ে বাড়াবাড়ি হয়ে যায়। এর ফলে ইনফ্লেমেশনের সমস্যা তৈরি হয়। এই সময় অ্যান্টি ইনফ্লেমেটারি খাবার শরীর ভাল রাখে। এই সব খাবারে প্রচুর পরিমানে ভিটামিন, মিনারেল ও ওমেগা-থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড থাকে।  এই উপাদানগুলি শরীরের অ্যান্টি অক্সিডেন্ট ও অ্যান্টি ইনফ্লেমেটারি কার্যকারিতা বাড়িয়ে তোলে। এর ফলে গাট হেলথ ভাল হয়।

তবে নিত্যদিনের খাদ্যতালিকায় এই সব খাবার খাওয়ার পাশাপাশি নিয়মিত শরীরচর্চা যেমন যোগা করলে শরীর ভাল থাকবে। এতে শরীরের আর্দ্রতা বজায় থাকবে। গাটের স্বাস্থ্যও ভাল থাকবে।bs

Related Posts

© 2022 Totka24x7 - Theme by WPEnjoy · Powered by WordPress