জীবনযাপনসৌন্দর্য

অনুষ্কা শর্মার মত উজ্জ্বল ত্বকের রহস্য, জেনেনিন

বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী আনুশকা শর্মা তার অভিনয়ের দক্ষতায় বেশ জনপ্রিয়তা অর্জন করেছেন। পাশাপাশি তার উজ্জ্বল ত্বক ও আকর্ষণীয় ফিটনেস অবাক করে দেয় সবাইকে। এক সন্তানের জননী আনুশকা কীভাবে তার রূপচর্চা করেন, তা জানতে চান ভক্তকূল।

জানলে অবাক হবেন, বলিউডের এই অভিনেত্রী ঘরোয়া উপাদান ব্যবহার করেই রূপচর্চা করে থাকেন। সদ্য মা হয়েছেন আনুশকা। তবুও তার রূপ একেবারেই সেই আগের মতো। জানেন কেন?

কারণ আনুশকা শর্মা প্রতিদিন ত্বকে ব্যবহার করেন একটি ম্যাজিক ফেসপ্যাক। সেই ফেসপ্যাকের জাদুতেই নিজের রূপ-যৌবনকে একেবারে আটকে রেখেছেন আনুশকা! আপনিও চাইলে আনুশকার মতো উজ্জ্বল ত্বক পেতে ঘরেই তৈরি করতে পারেন সেই বিশেষ ফেসপ্যাক। কীভাবে জেনে নিন-

কিছু পরিমাণ নিমপাতা নিয়ে নিন। ভালো করে নিমপাতা ধুয়ে ব্লেন্ড করে নিন। এবার সেই নিমপাতার সঙ্গে মিশিয়ে নিন দুই চামচ টকদই ও অর্ধেক কাপ কাঁচা দুধ।

ভালো করে সব উপাদান মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণ সপ্তাহে অন্তত তিন দিন মুখে ব্যবহার করুন। ১০ মিনিট রেখে শুকিয়ে গেলে ঠান্ডা জল দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। দেখবেন ত্বক একেবারে ঝকঝকে হয়ে গিয়েছে।

আনুশকা আরও একটি ফেসপ্যাক ব্যবহার করেন। এটি তৈরি করতে বেসনের সঙ্গে কাঁচা দুধ মিশিয়ে নিন। সামান্য মধুও দিতে পারেন। বাইরে থেকে এসে প্রতিদিন ব্যবহার করুন এই ফেসপ্যাক।

১৫-২০ মিনিট ত্বকে এই ফেসপ্যাক ব্যবহার করে ধুয়ে ফেলুন। দেখবেন মুখের জেল্লা ফিরে যাবে। এসব ঘরোয়া উপাদান ত্বকের জন্য খুবই উপকারী। তাই মসৃণ ও দাগহীন ত্বক পেতে আজ থেকেই ব্যবহার করুন এই ফেসপ্যাক।

এ ছাড়াও আনুশকা নিয়মিত ফেস ম্যাসাজ করে থাকেন। এর ফলে ত্বকের রক্ত সঞ্চালন বাড়ে। নিয়মিত ত্বক ম্যাসাজ করলে মুখের মেদ কমে, সেইসঙ্গে ত্বকের ইলাস্টিসিটি উন্নত বাড়ে। এর ফলে ত্বক থাকে টানটান এবং মুখে পড়ে না বলিরেখা।

শুধু শরীর ফিট রাখতেই নয়, আনুশকা শর্মা তার ত্বক ও চুলের প্রতিও সঠিক যত্নবান। এজন্য ত্বক ও চুলের স্বাস্থ্য রক্ষায় নিয়মিত শরীরচর্চা করেন। এ ছাড়াও ফেসিয়াল ইয়োগা করে থাকেন। এর ফলে মুখে যেমন মেদ জমে না; ঠিক তেমনই ত্বকের বিভিন্ন সমস্যারও সমাধান হয়।

আনুশকা তার স্কিন কেয়ার রুটিন প্রতিদিন অনুসরণ করেন। এজন্য মেকআপ ওঠাতে ভালো মানের ক্লিঞ্জার ব্যবহার করেন। ফেসওয়াশ দিয়ে মুখ ভালো করে ধুয়ে নেন। এরপর ত্বক অনুযায়ী ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করে থাকেন এই নায়িকা। প্রতিদিন সানস্ক্রিন ব্যবহারের বিকল্প নেই বলেও জানান আনুশকা।

Related Articles

Back to top button