মাইগ্রেনের ব্যাথায় কি সবথেকে কার্যকরী ওষুধ হলো শারীরিক মিলন, জেনেনিন কি বলছে গবেষণা

মাইগ্রেনের ব্যথা যে কতটা ভয়াবহ সেটা তো ভূক্তভোগীরাই ভালো জানেন। এমন ভয়াবহ মাথার যন্ত্রণা থেকে মুক্তি পেতে ওষুধের মতোই কার্যকরী এই উপায়ের কথা সম্প্রতি নিশ্চিত করেছেন বিজ্ঞানীরা। জার্মানির মুন্টার বিশ্ববিদ্যালয়ের নিউরোলজি বিভাগের গবেষকরা প্রমাণ পেয়েছেন যে, যৌন সম্পর্ক মাইগ্রেনের ব্যথা কমাতে ওষুদের মতোই কাজ করে।

সেফালাজিয়া, দ্য জার্নাল অফ দ্য ইন্টারন্যাশনাল হেডেক সোসাইটিতে প্রকাশিত এই রিপোর্টে বিজ্ঞানীদের দাবি, যৌন মিলন সরাসরি প্রভাব ফেলে মস্তিষ্কে। এর হাত ধরেই সেরে ওঠে মাইগ্রেনের মতো অসুখ! প্রায় ৩৫০ জন মাইগ্রেন আক্রান্তের উপর এই পরীক্ষা চালান গবেষকরা। যৌন সম্পর্কে লিপ্ত হওয়ার পর এদের প্রায় ৬০ শতাংশেরই ব্যথা অনেকটা কমে গেছে।

ব্যথার দিনগুলোয় নিয়মিত যৌন মিলন প্রতি পাঁচ জনের এক জনকে মাইগ্রেনের ব্যথা সারিয়ে তুলতেও সাহায্য করেছে। বাকি ৪০ শতাংশের কারও কারও ক্ষেত্রে ব্যথা কিছুটা কমেছে, মাত্র ৩ শতাংশের ব্যথা কমেনি।

অন্যতম গবেষক স্টেফান এভার্সের মতে, ‘যৌনতা শরীরে নানা হরমোন ক্ষরণ ঘটায়। নিয়মিত সুস্থ যৌনতার অনেক ভালো দিক আছে। এই হরমোনের জাদুতেই মাইগ্রেনের ব্যথাও কমে যায়। যাদের এই ব্যথা কমেনি সে ক্ষেত্রে পার্টনারের সঙ্গে তাদের সম্পর্ক, গ্রহণযোগ্যতা, নিয়মিত যৌন জীবনে অভ্যস্ত কি না, বয়স এগুলোও খতিয়ে দেখার বিষয়।’

গবেষকদের মতে, সুস্থ ও স্বাভাবিক যৌন মিলনের সময় শরীরের সেন্ট্রাল নার্ভাস সিস্টেমের দ্বারা এন্ডরফিন হরমোনের ক্ষরণ হয়। এই হরমোন মূলত ‘ফিল গুড’ ফ্যাক্টরকে অনেকটা স্থায়ী করে এবং এটি অন্য যে কোনো কড়া বেদনানাশক ওষুধের চেয়েও বেশি কাজ করে। এর প্রভাবেই মাইগ্রেনের মতো নাছোড় ব্যথাও কমে যায়। তাছাড়া নিয়মিত যৌন সম্পর্কের অন্যান্য শারিরীক উপকার তো আছেই।