জীবনযাপন

ওজন কমাতে চান, তাহলে কখনোই করবেন এই পাঁচটি ভুল, জেনেনিন বিস্তারিত

দৈনন্দিন নানান বদ অভ্যাসের কারণে আমাদের দেহে মেদ বাড়তে থাকে। যা এক সময় মারাত্মক সব রোগের সৃষ্টি করে। অনেকেই মেদ কমাতে বিভিন্ন রকম ডায়েট প্ল্যান অনুসরণ করেন। কিন্তু ওজন কমানো একরাতের বিষয় না। অনেক ধৈর্য, ত্যাগ আর পরিশ্রমের ফলে ওজন কমিয়ে কাঙ্ক্ষিত ওজন অর্জন করা সম্ভব হয়।

তবে আমরা অনেকেই ওজন কমানোর ক্ষেত্রে কিছু অন্ধবিশ্বাস মেনে চলি। তার মধ্যে একটা হলো বিকাল পাঁচটার পরে কার্বহাইড্রেট না খাওয়া। এ বিষয়টি পুরোপুরি উড়িয়ে দিয়েছেন খ্যাতনামা পুষ্টিবিশেষজ্ঞ রাসেল পল। এমন ভুলের পাশাপাশি আরও কিছু ভুল আমরা করে থাকি ওজন কমানোর ক্ষেত্রে যা উল্টো ওজন বাড়িয়ে দেয়। তাই চলুন জেনে নেয়া যাক ওজন কমাতে চাইলে যে পাঁচটি ভুল করা যাবে না-

ঘুমের সময় নির্ধারণ না করা

কোনোদিন আপনি খুব দেরিতে ঘুমাচ্ছেন আর কোনোদিন আপনি তাড়াতাড়ি ঘুমাচ্ছেন, এতে করে শরীরের ওপর প্রভাব পড়ে। যা ওজন নিয়ন্ত্রণের বাধা হয়ে দাঁড়ায়। তাই প্রতিদিন একই সময়ে ঘুমানোর চেষ্টা করুন।

পর্যাপ্ত পরিমাণ না খাওয়া

কোনো একদিন বেশি খেয়ে আপনি পরদিন যদি একেবারেই না খান বা অল্প খান সেক্ষেত্রে সাইকেল নষ্ট হয়ে যাবে। কারণ ওজন কমানোর জন্য প্রতিদিন একটি রুটিনে থেকে আপনার খাবার খেতে হবে। কোনোদিন খুব বেশি বা কোনোদিন খুব কম এমন না।

রাতে কম খাওয়া

অনেকেই মনে করেন ওজন কমানোর জন্য রাতে যত কম খাওয়া যায় তত ভালো। কিন্তু আপনার যদি পেট না ভরে বা ক্ষুধা থাকে তাহলে হতে পারে নানা সমস্যা। কম খাওয়ার অর্থ এই না যে আপনি আপনার পেট ভরাবেন না। দীর্ঘ সময় পেট ভরা রাখার জন্য প্রোটিন, স্টার্চ, ফ্যাট খাওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন পুষ্টিবিশেষজ্ঞ।

তৃপ্তিদায়ক খাবার না খাওয়া

স্বাদযুক্ত খাবার এবং ভালো মশলাদার খাবার তৃপ্তির অনুভূতি জাগায়। কিন্তু ওজন কমানোর জন্য আমরা রাতের খাবার হিসেবে মুখরোচক কিছু খেতে চাই না। এটা ভুল। চিন্তা ছাড়া স্বাস্থ্যকর মুখরোচক খাবার খাওয়া যেতে পারে রাতের বেলাও।

মিষ্টি খাবার না খাওয়া

আমাদের যখন ‍তখন মিষ্টি জাতীয় কোনো খাবার খাওয়ার ইচ্ছা হতে পারে। এক্ষেত্রে রাতে যদি ইচ্ছা হয় আপনি স্বাস্থ্যকর ডেজার্ট বানিয়ে নিয়ে খেতে পারেন চিন্তা ছাড়া। তবে তা যেন নির্দিষ্ট পরিমাণ হয়।

Related Articles

Back to top button