জীবনযাপন

সাবধান! এসব অভ্যাসের কারণেই কমে যায় কামশক্তি, জেনেনিন বিস্তারিত

মপান বর্তমান যুগের যেমন একটি ফ্যাশন হয়ে দাঁড়িয়েছে, মানুষ এগুলো ছাড়া যেন জীবিত থাকতে পারে না, কিন্তু ধূমপান যে স্বাস্থ্যের পক্ষে কতটুকু ক্ষতিকারক তা কল্পনা করাও এত সহজ নয়। আসুন জেনে নেই ধূমপানের ফলে কোন কোন মারাত্মক রোগ গুলি হতে পারে।

১) যারা সব সময় ধূমপান করেন তাদের ফুসফুসে বিড়ি বা সিগারেট থেকে যে নিকোটিন বের হয় সেগুলি তাদের ফুসফুসে গিয়ে জমা হয় এবং ধীরে ধীরে বিভিন্ন ধরনের হৃদ রোগের সৃষ্টি হয়।

২) তামাক সেবনের ফলে মুখে, গলায়, ফুসফুসে এবং পেটে তাড়াতাড়ি ক্যান্সারের সৃষ্টি হয়।

৩) ধূমপানের ফলে শ্বাসকষ্ট জনিত রোগ যেমন ব্রংকাইটিস হতে পারে যে কারণে শ্বাস প্রশ্বাসে কষ্ট হয় এবং এর সাথে অতিরিক্ত কাশিও বেড়ে যায়।

৪) অতিরিক্ত ধূমপানের ফলে অষ্ঠমা রোগের সৃষ্টি হয় যার কারণে অনেক সময় মানুষের খুব তাড়াতাড়ি মৃত্যু হয়ে যায়।

৫) ধূমপানের ফলে মহিলাদের গর্ভপাত এবং জরায়ু সম্বন্ধিত রোগ এবং ক্যান্সার হয়ে যায়।

৬) ধূমপানের ফলে মানুষের চোখেরও ক্ষতি হয় যেমন অনেক সময় মানুষের চোখের দৃষ্টিশক্তি কমে যায়।

৭) অতিরিক্ত ধূমপানের ফলে অনেক সময় পুরুষরা তাদের পুরুষত্বহীনতা জনিত রোগ দেখা দেয়।

৮) অতিরিক্ত ধূমপানের ফলে মানুষের ফুসফুসে বিড়ি বা সিগারেট এর ধোঁয়ার কস জমতে থাকে এবং এতে ফুসফুস ব্লক হয়ে যায়, যার ফলে মানুষের শ্বাস নিতে অনেক কষ্ট হয়।

৯) ধূমপানের ফলে আমাদের শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যায় এবং এতে বাইরের অনেক জীবাণু আমাদের শরীরে অতি সহজে প্রবেশ করে যার ফলে আমাদের শরীর দুর্বল হতে থাকে।

১০) অতিরিক্ত ধূমপানের ফলে মানুষের মধ্যে যে প্রজনন ক্ষমতা রয়েছে সেটি কমতে থাকে এবং হয়তো ভবিষ্যতে পিতা হওয়ার সম্ভাবনা কমে যেতে পারে।

এইসব কারণে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব ধূমপান ছেড়ে দেওয়া উচিত আর নয়তো বা এর ক্ষতিকারক পরিনাম গুলি ভোগার জন্য তৈরি থাকা উচিত।

তাহলে বন্ধুরা আমাদের আজকের পোস্টটি আপনাদের কেমন লাগলো যদি ভালো লেগে থাকে তাহলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন যাতে তারাও যত তাড়াতাড়ি সম্ভব ধূমপান ছেড়ে দেয় এবং ধূমপানের ক্ষতিকারক প্রভাব গুলির হাত থেকে বাঁচতে পারে।

Related Articles

Back to top button